ইসলাম

জেনে নিন শবেকদরের দোয়া, আলাতম ও তাৎপর্য

  

পিএনএস ডেস্ক :আল্লাহতায়ালা গোটা বছরের প্রত্যেক রাতের মধ্যে যে একটি রাতের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন, সেটি হলো, ‘লাইলাতুল কদর’ বা মর্যাদার রাত। আল্লাহতায়ালার ভাষায়, ‘নিশ্চয় আমি এটি (কোরআন) নাজিল করেছি বরকতময় ‎রাতে; নিশ্চয় আমি সতর্ককারী।‎আল্লাহতায়ালা গোটা বছরের প্রত্যেক রাতের মধ্যে যে একটি রাতের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন, সেটি হলো, ‘লাইলাতুল কদর’ বা মর্যাদার রাত। আল্লাহতায়ালার ভাষায়, ‘নিশ্চয় আমি এটি (কোরআন) নাজিল করেছি বরকতময় ‎রাতে; নিশ্চয় আমি সতর্ককারী।‎ ‎সে রাতে প্রত্যেক প্রজ্ঞাপূর্ণ বিষয়ে

আজ জুমাতুল বিদা

  

পিএনএস ডেস্ক : পবিত্র মাহে রমজানের শেষ শুক্রবার (৩১ মে) আজ । অর্থাৎ জুমাতুল বিদা।ধর্মপ্রাণ মুসলিম সম্প্রদায় রমজান মাসের শেষ শুক্রবার জুমাতুল বিদা হিসেবে পালন করে থাকেন।দিনটি ইবাদত বন্দেগি ও জিকির-আজকারের মাধ্যমে পালন করেন মুসলমানরা। এ দিন জুমার নামাজ শেষে মহান আল্লাহর দরবারে ক্ষমা ও রহমত কামনা করেন মুসল্লিরা।পবিত্র রমজান মাসকে বিদায় জানাতে শেষ জুমা বারকে পালন করা হয় বিশেষ ইবাদতের মাধ্যমে। প্রত্যেক বছরের মতো এবারও দেশব্যাপী মসজিদে-মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করবেন মুসল্লিরা। খুতবায় রমজান

মুয়াজ্জিন আযানের আগে নাকি পরে ইফতার করবেন?

  

পিএনএস ডেস্ক :রোযাদারের ইফতার করার ক্ষেত্রে বিধান হলো- সূর্য অস্ত যেতে হবে এবং রাত শুরু হতে হবে। এর দলীল হচ্ছে- আল্লাহ তাআলার বাণী:( وَكُلُوا وَاشْرَبُوا حَتَّى يَتَبَيَّنَ لَكُمُ الْخَيْطُ الأَبْيَضُ مِنَ الْخَيْطِ الأَسْوَدِ مِنَ الْفَجْرِ ثُمَّ أَتِمُّوا الصِّيَامَ إِلَى اللَّيْلِ )[2 البقرة : 187]“আর পানাহার কর যতক্ষণ না কাল রেখা থেকে ভোরের শুভ্র রেখা পরিষ্কার দেখা যায়। অতঃপর রোযা পূর্ণ কর রাত পর্যন্ত।” [২ আল-বাক্বারাহ : ১৮৭]এখানে আল্লাহ তাআলা রোযার সময়-সীমা নির্ধারণ করে

নাজাতের ১০ দিন জাহান্নাম থেকে মুক্তি পাবে বান্দারা

  

পিএনএস ডেস্ক : শেষ হলো দুই ধাপে পবিত্র রমজান মাসের প্রথম ২০ দিন রহমত ও মাগফিরাত। আগামীকাল সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে নাজাতের শেষ ১০ দিন। প্রিয় নবী রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, রমজান মাসের প্রথম ১০ দিন হলো রহমত; তার দ্বিতীয় ১০ দিন মাগফিরাত; এর শেষ ১০ দিন হলো নাজাত। সাধারণভাবে বলা হয়ে থাকে, প্রথম ১০ দিন আল্লাহ তাআলা তাঁর বান্দাদের প্রতি রহমত বা দয়া বণ্টন ও বিতরণ করতে থাকবেন। দ্বিতীয় ১০ দিন আল্লাহ তাআলা তাঁর বান্দাদের ক্ষমা করতে থাকবেন। শেষ ১০ দিন আল্লাহ তাআলা তাঁর বান্দাদের জাহান্নাম থেকে নাজাত

আজ মক্কা বিজয় দিবস

  

পিএনএস ডেস্ক: আজ রমজানুল মোবারকের ২০ তারিখ। ইসলামের ইতিহাসে অত্যন্ত তাৎপর্যবহ একটি ঘটনার সাক্ষী রমজানের ২০ তারিখ। শুধু ইসলামের ইতিহাসে নয়, বিশ্ব সভ্যতার ইতিহাসে অনন্য সাধারণ বৈশিষ্ট্য ও মর্যাদার অধিকারী এ ঘটনাটি হলো মক্কা বিজয়। ইসলামের নবী সাল্লাল্লাহু আলায়হি ওয়া সাল্লাম হিজরতের অষ্টম বছরে ১০ হাজার মুসলিম সৈন্যের এক বাহিনী নিয়ে মক্কা নগরী জয় করেছিলেন এদিনে। আজ থেকে ১৪৩২ বছর আগে মহানবী সাল্লাল্লাহু আলায়হি ওয়া সাল্লাম তৎকালীন আরব ভূমির সবচেয়ে প্রসিদ্ধ জনপদে বিজয় নিশান উড্ডীন করেছিলেন। এ ঘটনা

বিজোড় রাতে শবেকদরের সম্ভাবনা

  

পিএনএস ডেস্ক : রমজান বছরের শ্রেষ্ঠ মাস। এ মাসের সবচেয়ে ফজিলতপূর্ণ দিন হলো শেষ ১০ দিন। কেননা এ দশকেই রয়েছে পবিত্র শবেকদর। বিশেষ হেকমতের কারণে শবেকদরের দিনক্ষণ ঠিক করে দেওয়া হয়নি। এর মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ইবাদতের প্রতি মনোনিবেশ করতে বলা হয়েছে। শবেকদর সম্পর্কে ইরশাদ হয়েছে, ‘নিশ্চয়ই আমি কোরআন নাজিল করেছি লাইলাতুল কদরে। তুমি কি জান, লাইলাতুল কদর কী? লাইলাতুল কদর হাজার মাসের চেয়েও উত্তম।’ (সুরা : কদর, আয়াত : ১-৩)।আরবি লাইলাতুল কদরের ফারসি হলো শবেকদর। বাংলায় ভাগ্যরজনী। এটি শ্রেষ্ঠতম রাত। এ রাতের

স্বামী বিদেশে থাকলে ইসলামের দৃষ্টিতে স্ত্রীর করণীয় কি

  

পিএনএস ডেস্ক : স্বামী বিদেশে থাকলে তার দ্বীন ও দুনিয়া বিষয়ক সকল কিছুর দায়িত্বশীলা হয় স্ত্রী। স্বামী ঘরে থাকতে যে দায়িত্ব সে পালন করে, সে ঘরে না থাকলেও অনুরূপ দায়িত্ব পালনে তৎপর থাকে। আল্লাহর রসূল (সাঃ) বলেন, “তোমাদের প্রত্যেকেই দ্বায়িত্বশীল এবং প্রত্যেককেই তার দায়িত্ব-বিষয়ে (মিয়ামতে) কৈফিয়ত করা হবে। ইমাম (রাষ্ট্রনায়ক তার রাষ্ট্রের) একজন দায়িত্বশীল, সে তার দায়িত্ব-সম্পর্কে জিজ্ঞাসিত হবে। পুরুষ তার পরিবারে দায়িত্বশীল, সে তার দায়িত্ব- বিষয়ে জিজ্ঞাসিত হবে।মহিলা তার স্বামী-গৃহের

যে মসজিদের আজান শুনে ইফতারি করা উচিত?

  

পিএনএস ডেস্ক: পবিত্র মাহে রমজানে রোজাদাররা মসজিদের আজান শুনে ইফতারি করেন। আসুন জেনে নেই কোন মসজিদের আজান শুনে একজন রোজাদারের ইফতার করা উচিত।ইফতারের জন্য আজান শোনা শর্ত নয়। ইফতারের জন্য রাসুল (সা.) বলেছেন যে, ‘যখন সূর্য অস্ত যাবে আর রাত পশ্চিম দিক থেকে আগমন করবে এবং দিবস প্রস্থান করবে, তখন রোজাদার ব্যক্তি সিয়াম ভঙ্গ করবে, ইফতার করবে।’ সুতরাং, সূর্যাস্ত যদি নিশ্চিত হয়ে যায়, তাহলে ইফতার করা আপনার জন্য ওয়াজিব।তবে আপনি যদি মসজিদে আজান শোনার জন্য অপেক্ষা করেন, সেই মসজিদের আজান যদি

ঈদের নামাজ পড়ার নিয়ম

  

পিএনএস ডেস্ক : ঈদ আরবি শব্দ, এর আভিধানিক অর্থ খুশি বা আনন্দ। ঈদ বলতে ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা বা কুরবানীর ঈদকে বুঝায়। দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনের পর শাওয়াল মাসের প্রথম দিন যা ঈদুল ফিতর নামে পরিচিত। আর একটি যিলহজ্জ মাসের দশ তারিখ যা ঈদুল আযহা বা কুরবানীর ঈদ। বছরে আমাদের দুই বার ঈদগাহে ঈদের নামাজ পড়ার জন্য যেতে হয়। দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হওয়ার কারণে আমাদের অনেকেই ঈদের নামাজের নিয়মগুলো ভুলে যায়। আসুন জেনে নেই ঈদের নামাজের নিয়মগুলো-ঈদের নামাজ :ঈদের নামাজ দুই রাকাআত। ঈদের নামাজ আদায় করা ওয়াজিব।

জেনে নিন রোজাদারদের জন্য ১১টি জরুরি পরামর্শ!

  

পিএনএস ডেস্ক : রহমত, মাগফিরাত ও নাজাত। এই তিনভাগে পবিত্র রমজান মাসকে ভাগ করা হয়েছে। রমজান হলো প্রশিক্ষণের মাস। মহান আল্লাহ চান তাঁর বান্দা তাঁর গুণাবলি অর্জন করে সেই গুণে গুণান্বিত হোক। হাদিস শরিফে রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘তোমরা আল্লাহর গুণে গুণান্বিত হও।’ প্রত্যেক মুমিন ব্যক্তিই এই রমজান মাসে সারা বছরের নেকি ও পূণ্যের ঘাটতি পূরণের প্রাণান্তকর চেষ্টা করে থাকেন। ইবাদতের মাধ্যমে রহমতের ১০ দিন অতিবাহিত করার পর মুমিন ব্যক্তিরা মাগফিরাত লাভের আশায় আল্লাহ পাকের দরবারে নিজেকে নতুন করে নিয়োজিত

Developed by Diligent InfoTech