পাঠকের চিঠি

রোহিঙ্গা শিশুরা কি মায়ের কোলেই মারা যাবে?

  

পিএনএস ডেস্ক মারাত্মক পরিবেশের মধ্যদিয়ে তারা বাংলাদেশে আসছে যেমন-,পায়ে হেটে, না খেয়ে, দীর্ঘসময় গরমের মধ্যে দিয়ে রোহিঙ্গা শিশুরা আসছে, আসার সময় পথে পথে বসে থাকতে হয়েছে। তাদের ঘর থেকে বের হয়ে ১০ থেকে ১৫ দিন সময় লেগেছে,এখানে এসে দীর্ঘ সময় খোলা আকাশের নিচে রাস্তায় পড়ে থাকতে হচ্ছে।প্রখর সূর্যের তাপ, বৃষ্টি ভিজা যা শিশু শরীরের জন্য মারাত্মক ঝুকি, নতুন পরিবেশের আবহাওয়ার বিরুপ প্রতিক্রিয়া তো আছে। এ পরিবেশে দুই লক্ষের অধিক শিশু বেঁচে থাকতে পারবে?শনিবার শাহ পরীর দ্বীপ থেকে ছবি গুলো ছবিগুলো

‘এর চেয়ে নির্মমতা আর কি হতে পারে?’

  

পিএনএস ডেস্ক: রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চিকিৎসা দিচ্ছিলো কিছু ভাই,মহিলা ডাক্তারের অভাবে নারী-পুরুষ সবাইকে চিকিৎসা দিতে হচ্ছিলো ডাক্তার ভাইদের।এক বোন খুব অসুস্থ হওয়ার পরেও লজ্জায় কিছুই বলছিলেন না, আমাদের ভাইয়েরাও ছাড়ছে না, কি হয়েছে তা তো জানতে হবে চিকিৎসা দিতে হলে।অনেক কষ্টে যখন বোঝা গেলো ঘটনা কি, তখন মনে হইলো না শুনলেই বোধহয় ভালো হতো, একটু হলেও কষ্ট টা হজম করা যেতো।বোনটি ছিল গর্ভবতী, ১৪ দিন বন-জংগল পাড়ি দিয়ে আসার পথে এবরেশন (গর্ভপাত) হয়ে গেছে! এখন ব্লিডিং বন্ধ হচ্ছে না। উফ....কত টা

‘এটাই মানবতা এটাই উদারতা, যাদের বুঝতে অসুবিধা তাদের মস্তিষ্ক অনুভূতি বিষাক্ত’

  

পিএনএস ডেস্ক: রোহিঙ্গা ইস্যুতে তুর্কি ফার্স্ট লেডি এমিনি এরদোগানের ঢাকা সফর এবং কক্সবাজারে গিয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণকে ঢাকার কয়েকজন সাংবাদিক বাঁকা চোখে দেখেছেন। এ নিয়ে তারা নিজেদের ফেসবুক পেইজে স্ট্যাটাস দিয়ে বিষোদগার করেছন।এরই প্রতি ইঙ্গিত করে নিজের ফেসবুক পেইজে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল। ড. নজরুল তার স্ট্যাটাসে বলেন, ‘তুরষ্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানের স্ত্রী এবং দেশটির কয়েকজন মন্ত্রী বাংলাদেশে এসে রোহিঙ্গা

ষোড়শ সংশোধনীর রায় : একটি মজার কথা

  

পিএনএস ডেস্ক: আজকের তারিখটি আবেগময় আজ ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭। ১৯৭০ সালের ৬ সেপ্টেম্বর পাকিস্তান মিলিটারি একাডেমি কাকুল থেকে (২৪তম ওয়ার কোর্সের একজন সদস্য হিসেবে) কমিশন পেয়েছিলাম। মহান আল্লাহ তায়ালার অশেষ দয়ায় আমাদের কোর্সে (সাধারণ বাংলা পরিভাষায়, আমাদের ব্যাচে) সর্বোত্তম ক্যাডেট বিবেচিত হয়েছিলাম তথা প্রথম স্থান অধিকার করেছিলাম। একান্তই কাকতালীয়ভাবে আজ আপনারা আমার কলাম পড়ছেন। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর রেওয়াজ মোতাবেক সর্বোত্তম ক্যাডেটকে দেয়া পুরস্কারগুলোর মধ্যে একটি ছিল ক্যাডেটের পছন্দমতো স্থানে

বাঙালি নারী পুরুষের সাথে প্রতিযোগিতা করে পুরুষের ঘাড়ে বসেই

  

পিএনএস ডেস্ক : পৃথিবীতে বাঙালি নারীই হচ্ছে একমাত্র হাস্যকর জাতি যারা পুরুষের মতো হতে চায়, পুরুষের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে চায়, কিন্তু সেটা করতে চায় পুরুষের ঘাড়ে বসে। পান থেকে চুল খসলে কমন ডায়লগ, ‘খাওয়াতে না পারলে বিয়ে করছে কেন?’ আরে, বিয়ে কি ছেলেরা একা করে নাকি? এ যুগের ছেলেদেরও একটা নতুন ডায়লগ ডেভেলপ করা দরকার, ‘তুমি বসেছিলে বলেই বিয়ে করছিলাম, খাওয়াইতো চাকর-বাকরকেও।’গত বছর আনিসুল হক স্যার এই বিষয়ে আমার একটা পোস্ট শেয়ার করেছিলেন। সেদিনের সেই পোস্টটা তিন ঘণ্টার মধ্যে ১২২টা শেয়ার হয়েছিল। বুঝতে

কবে জাগবে আমাদের বিবেক?

  

পিএনএস ডেস্ক: রাতে চলন্ত বাসে ধর্ষণ করে হত্যা করা হয় এক তরুণীকে। ধর্ষণ ও হত্যার পরও ধর্ষকরা বিকারহীন। পৈশাচিক এই ধর্ষণ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়।গত শুক্রবার টাঙ্গাইলের মধুপুরে চলন্ত বাসে এক তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে ওই বাসের পাঁচ কর্মী। মঙ্গলবার পাঁচজনকেই গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আটকদের মধ্যে তিনজন ধর্ষণ ও হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। একটি বহুজাতিক সংস্থায় কর্মরত ওই তরুণী বগুড়ায় শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে বাসে করে কর্মস্থল ময়মনসিংহে ফিরছিলেন।টুইটারে খবরটি শেয়ার

ওখানে ধর্মগুরু এখানে ‘ভন্ডপীর’: ধর্মের ব্যবসার আড়ালে কুৎসিত রূপ

  

পিএনএস ডেস্ক : পীর হাবিবুর রহমানবিশ্বে অন্যতম শীর্ষ ক্ষমতাধর রাষ্ট্র ভারতে ধর্মগুরুদের যে কুৎসিত, যৌন বিকৃত চেহারা উন্মোচিত হচ্ছে তাতে অবাক ও বিস্মিত হতে হয়। একুশ শতকের বিজ্ঞান মনষ্ক, তথ্য প্রযুক্তির চূড়ান্ত বিকশিত আধুনিক যুগে ভাবলে অবাক লাগে, প্রাচ্য কতটা পশ্চাদপদ হয়ে রয়েছে। সম্প্রতি ভারতে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্মগুরু, গুরমিত রাম রহিম সিংহকে গ্রেপ্তার করে সিবিএ ২০ বছরের কারাদন্ড ও অর্থদন্ড দিয়েছে। বলা হচ্ছে, এত ধর্ষণ আর হত্যা মামলার অভিযোগে অভিযুক্ত এই ধরণের অপরাধীর প্রাপ্য শাস্তি হওয়া

নজরুল সাহিত্যের দার্শনিক রূপরেখা !

  

পিএনএস ডেস্ক: আমাদের নজরুল নোবেল পাননি । নোবেল প্রাপ্ত হননি ‘ওয়ার অ্যান্ড পিস’ ও ‘আন্না কারেনিনা’র মত জগৎ বিখ্যাত সাহিত্যকর্ম সৃষ্টিকারী লিও তলস্তয়ও । তাই বলে কি সাহিত্যের ভূবনে নোবেল প্রাপ্তদের থেকে এদের অবদান কম ? মোটেই না । বরং অনেক নোবেল প্রাপ্ত কবি-সাহিত্যিকের চেয়ে নজরুল ইসলাম কিংবা লিও তলস্ততয়দের ভূমিকা বহুগন বেশি । হোক সেটা সমাজ সংস্কারের ক্ষেত্রে কিংবা সাহিত্যের উদ্দেশ্যের ভিন্ন কোন আঙ্গিকে । কবি-সাহিত্যিকদের শ্রেষ্ঠত্ব নির্ধারিত হয় পাঠকের মূল্যায়ণ কেন্দ্রিক ভালোবাসার দ্বারা । এরা

কোরবানি নিয়ে বুজরুকি বনাম বন্যার্তদের আহাজারি

  

পিএনএস: পৃথিবীতে যতগুলো মানবতাবাদী মতবাদ বিদ্যমান আছে সেগুলোর মধ্যে ধর্মীয় মানবতাবাদ নিঃসন্দেহে শ্রেষ্ঠত্বের সম্মানে শীর্ষে অবস্থান করে। প্র্রতিষ্ঠিত ধর্মগুলোর মধ্যে আবার ইসলামিক মানবতাবাদ সকল মানবাদী মতবাদের প্রতিনিধিত্ব করে। ইসলামের কোথাও বলা হয়নি প্রতিবেশীকে ভূখা রেখে তোমরা আহার করো। জ্ঞাতিকে বঞ্চিত রেখে তোমরা ভোগ করো কিংবা অন্যের কষ্ট দেখে তোমরা উল্লাস করো। বরং ইসলাম তার অনুসারীদের কঠোরভাবে নির্দেশ প্রদান করেছে, ধর্মীয় হুকুম-আহকাম পালনের সাথে সাথে মানুষের মঙ্গলের জন্য নিবেদিত হতে।

এ দানব রুখবে কে!

  

পিএনএস ডেস্ক:বাংলাদেশের বড় একটি অঞ্চল ডুবে আছে বন্যায়। মানবেতর জীবনযাপন করছেন লাখ লাখ মানুষ। অপ্রত্যাশিত বন্যায় ডুবে আছে অনেকের বাড়ি-ঘর। বসবাস করতে হচ্ছে গবাদি পশুর সঙ্গে। যাদের আশ্রয়টুকুও নেই, তারা বসবাস করছেন ঘরের চালায়, রান্না-বান্নাও হচ্ছে সেখানেই! সরকারি বা বেসরকারিভাবে ত্রাণ দেওয়ার প্রচেষ্টা থাকলেও পুনর্বাসন প্রচেষ্টা নেই বললেই চলে। সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর মধ্যে সমন্বয়হীনতার কারণে দুর্ভোগ বেড়েছে আরো।সাধারণ মানুষ যার যার অবস্থান অনুযায়ী ত্রাণ দেওয়ার জন্য

Developed by Diligent InfoTech