ভারতে আরেক ধর্ষক সাধু গ্রেপ্তার

  


পিএনএস ডেস্ক: সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ক্রমেই সামনে আসছে ধর্ষক ভণ্ড বাবাদের ঘটনা! অবশেষে দেড় বছর পর সাধুর ছদ্মবেশে ভারতের তারাপীঠে আত্মগোপন করে থাকা ধর্ষক ‘বাবাকে’ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তির নাম অশোক পাল। বাড়ি, হুগলির মগরার ডেরিকুঠি এলাকায়।

‘সোর্স’ মারফৎ খবর পেয়ে শনিবার রাতে তাকে তারাপীঠ শশ্মান থেকেও গ্রেপ্তার করে মগরা থানার পুলিশ। পরে রবিবার চুঁচূড়া আদালতে তোলা হলে ১৪ দিনের রিমান্ডের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্তর হুগলির বাড়িতে ভাড়া থাকতেন একটি পরিবার। ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে টিভি দেখানোর নাম করে ওই পরিবারের শিশুকন্যাকে ঘরে নিয়ে গিয়ে যৌন নির্যাতন করে অশোক।

শিশুকন্যার কাছ থেকে ঘটনা শোনার পর ওই পরিবারের পক্ষ থেকে অশোক পালের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ দায়ের করা হয় মগরা থানায়। তারপর থেকেই পলাতক ছিল অভিযুক্ত।

সম্প্রতি পুলিশ জানতে পারে যে সাধুর ছদ্মবেশে তারাপীঠের শ্মশানে আত্মগোপন করে আছে ওই ব্যক্তি। এরপরই রামপুরহাট থানার সহযোগিতায় মগরা থানার পুলিশ শনিবার রাতে তারাপীঠ শশ্মান থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।

তারাপীঠের শশ্মান থেকে ছদ্মবেশী ধর্ষক ‘বাবা’ গ্রেপ্তার হতেই এলাকায় শোরগোল পড়ে যায়।

ইতোমধ্যেই ধর্ষণের অভিযোগে ২০ বছরের জেল হয়েছে ধর্ষক গুরু রামরহিমের। একে একে সামনে এসেছে ছত্তিশগঢ়ে তরুণীকে ধর্ষণে অভিযুক্ত ফলাহারি ‘বাবা’র কাহিনী। বৃন্দাবনের আশ্রমেও এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে ভণ্ড সাধু গোবিন্দ মহন্তকে গ্রেপ্তার করে বনগাঁ থানার পুলিশ।

স্বাভাবিকভাবেই জনমানসে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, এমন আরো কত ভণ্ড বাবা রয়েছেন?

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech