কুকীর্তি ঢাকতে গণধর্ষণের অভিযোগ,পরে অস্বীকার বিপাকে তরুণী

  

পিএনএস ডেস্ক : ২০১৭ সালের মার্চের ঘটনা। বিয়ে ঠিক হয়ে গেছে ব্রিয়ানা হারমোনের। কিন্তু কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না ওই তরুণীকে। শেষাবধি বাধ্য হয়ে নিখোঁজের ডায়েরি করেন তরুণীর হবু স্বামী।

পরে এক গির্জার পাশে অর্ধনগ্ন অবস্থায় পাওয়া যায় ওই তরুণীকে। হারমোনের দাবি, কৃষ্ণাঙ্গ তিন যুবক তাকে জোরপূর্বক অপহরণ করে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে টেক্সাসে।

পরে ২০ মার্চ গণধর্ষণের অভিযোগে মামলাও করেন হারমোন। বরাবরই তার পাশে থেকেছেন তার হবু স্বামী। মামলার অভিযোগে হারমোন বলেন, গির্জার পাশের একটি জঙ্গলে অল্প কিছু কাঠ নিতে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে তাকে একা পেয়ে মুখোশ পরা তিন কৃষ্ণাঙ্গ যুবক তাকে ধর্ষণ করে।

তবে তরুণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর জানা যায়, সে সময় সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মতো ঘটনা তার সঙ্গে ঘটেনি। তরুণী নিজেও বিষয়টি স্বীকার করে নেন।

আদালতের বিচারক তার কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সত্য প্রকাশে অস্বীকার করছে তরুণী। পরে সাজা হতে পারে এটা জানার পর তরুণী জানান, প্রেমিকের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন তিনি। তবে সেই প্রেমিক তাকে প্রত্যাখ্যান করেছে।

তিনি আরো জানান, বাড়ি ফেরার উপায় না পেয়ে এমনটা করেছেন তিনি। জানা গেছে, আদালত ওই তরুণীকে দোষী সাব্যস্ত করেছে। তবে তার কোনো সাজা ঘোষণা করা হয়েছে কিনা সে ব্যাপারে জানা যায়নি।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech