তরুণীর মস্তিষ্কের অস্ত্রোপচার সরাসরি দেখানো হলো ফেসবুকে

  

পিএনএস ডেস্ক : তরুণীর মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের ঘটনা সরাসরি দেখানো হয়েছে ফেসবুক লাইভে। যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের একটি হাসপাতালে সম্প্রতি এ ঘটনা ঘটেছে। অস্ত্রোপচারের সময় ওই তরুণী সজ্ঞানে ছিলেন এবং চিকিৎসকদের সঙ্গে কথাও বলেছেন তিনি।

বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত মঙ্গলবার ওই তরুণীর মস্তিষ্কের অস্ত্রোপচারের দৃশ্য ফেসবুকে লাইভ স্ট্রিমিং করা হয়। তরুণীর নাম জেনা শাট। ২৫ বছর বয়সী ওই তরুণীর মস্তিষ্কের অস্ত্রোপচারের ৪০ মিনিটের ভিডিওচিত্র ফেসবুকে সরাসরি দেখানো হয়। লাইভ স্ট্রিমিংয়ের দর্শক ছিলেন প্রায় এক লাখ।


ডালাস মেডিকেল সেন্টারের স্নায়ুতন্ত্র বিভাগের প্রধান নিমেশ প্যাটেল বলেন, জেনা শাটের স্ট্রোক হয়েছিল। এতে তাঁর কথা বলার ক্ষমতা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিল। অস্ত্রোপচারে মাথার খুলি খোলার সময় তরুণী সজাগ ছিলেন। মস্তিষ্কের যে অংশগুলো কথা বলার ক্ষমতাকে নিয়ন্ত্রণ করে, সেটি নষ্ট হচ্ছে কি না, সে ব্যাপারে নিশ্চিত হতেই চিকিৎসকেরা তাঁর সঙ্গে কথা বলে যাচ্ছিলেন। তাঁরা তরুণীকে পাখি, কুকুর অথবা সংখ্যার মতো কিছু শব্দ বলতে বলেছিলেন। এ ছাড়া অস্ত্রোপচারে ওই তরুণী স্মৃতিভ্রষ্ট হচ্ছেন কি না, সেটি বোঝার জন্য তাঁর পোষা কুকুরের সম্পর্কেও প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল।

রোগীদের সজাগ রেখে মস্তিষ্কের অস্ত্রোপচার অবশ্য নতুন কিছু নয়। কয়েক দশক ধরেই এমন অস্ত্রোপচার চালু আছে উন্নত দেশগুলোতে। মূলত রোগীদের মস্তিষ্কের প্রয়োজনীয় কর্মক্ষমতা ঠিক আছে কি না, তা বোঝার জন্যই এভাবে অস্ত্রোপচার করা হয়ে থাকে। তবে রোগী রাজি থাকলেই কেবল এমন অস্ত্রোপচার করা হয়ে থাকে।

জেনা শাট ইলিনয়তে অকুপেশনাল থেরাপি বিষয়ে পড়াশোনা করছেন। দ্রুতই তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়ার কথা রয়েছে।

নিমেশ প্যাটেল বলছেন, জেনা নিজেই তাঁর অস্ত্রোপচারের সরাসরি সম্প্রচার চেয়েছিলেন। এ থেকে দর্শকেরা অনেক কিছু শিখতে পারবেন বলে মনে করেছিলেন তিনি। হাসপাতালের অফিশিয়াল অ্যাকাউন্ট থেকেই অস্ত্রোপচারের লাইভ স্ট্রিমিং করা হয়েছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech