নারীবাদ উগ্রপন্থা বলে চিহ্নিত হবে সৌদিতে

  


পিএনএস ডেস্ক: সৌদি আরবে নারীদের অধিকার নিয়ে লড়াই করলে তাকে উগ্রপন্থী হিসেবে চিহ্নিত করা হবে। শুধু তাই নয়, নারীবাদের পাশাপাশি সমপ্রেম ও নাস্তিকতাও উগ্রপন্থা বলে বিবেচিত হবে।

সৌদি আরবের স্টেট সিকিউরিটি এজেন্সির পক্ষ থেকে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে এই বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে।

সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান দেশটিতে গত কয়েক বছরে বেশ কিছু সংস্কার করেছেন। নারীদের গাড়ি চালানোর অধিকার, স্টেডিয়ামে বসে ফুটবল ম্যাচ দেখার অধিকার দেওয়া হয়েছে। কড়া সামাজিক নিয়মকানুন কিছুটা শিথিল করে বিদেশি পর্যটক টানতে চালু করা হয়েছে ট্যুরিস্ট ভিসার ব্যবস্থাও। তা সত্ত্বেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে এখনও নিজের মনোভাবে অনড় সৌদি প্রশাসন। সম্প্রতি একটি ভিডিও সেই কথা স্পষ্ট হয়েছে।

জানা গেছে, ভিডিওটিতে নারীবাদ, সমপ্রেম এবং নাস্তিকতা রাষ্ট্রের পক্ষে হানিকর বলে উল্লেখ করা হয়েছে। সেই কারণে এগুলি উগ্রপন্থার নামান্তর বলে জানানো হয়েছে ভিডিওতে।

প্রসঙ্গত, সমপ্রেম এবং নাস্তিকতা সৌদি আরবে বরাবরই বেআইনি এবং মৃত্যুদণ্ডের সমতূল্য অপরাধ।

পিএনএস/মো. শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech