‘এ মাসেই রোহিঙ্গাদের অস্থায়ী আবাসন’

  


পিএনএস ডেস্ক: মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের জন্য এ মাসের মধ্যেই অস্থায়ী আবাসনের ব্যবস্থা সম্পন্ন করা হবে বলে জানিয়েছেন ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। তিনি বলেছেন, মিয়ানমার থেকে নির্যাতনের শিকার হয়ে আসা রোহিঙ্গাদের অস্থায়ীভাবে থাকার জন্য এরইমধ্যে এক লাখ ঘর তৈরি করা হয়েছে।

এখন পর্যন্ত যতো রোহিঙ্গা এসেছে তাদের অস্থায়ীভাবে থাকার জন্য সোয়া লাখ ঘর প্রয়োজন। এ মাসের মধ্যেই আমরা তাদের থাকার ঘর তৈরির কাজ সম্পন্ন করতে সক্ষম হবো। আজ শুক্রবার আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন মায়া। ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী বলেন, মানবিক কারণে আমরা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছি। তাদের থাকা-খাওয়ার সব ব্যবস্থা করা হবে। তবে মিয়ানমারকে অবশ্যই সব রোহিঙ্গা ফিরিয়ে নিতে হবে। রোহিঙ্গাদের নিয়ে কেউ রাজনীতি করার চেষ্টা করবেন না উল্লেখ করে মায়া বলেন, কেউ সহযোগিতা করতে চাইলে আমরা নিষেধ করবো না। কিন্তু রোহিঙ্গাদের সহযোগিতার নামে যদি কেউ রাজনীতি করার চেষ্টা করেন তাহলে বরদাস্ত করা হবে না।

দেশে যেকোনো ধরনের দর্যোগ মোকাবেলায় মন্ত্রণালয়, স্বেচ্ছাসেবকসহ বিভিন্ন বাহিনীর প্রশংসা করে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ দুর্যোগ মোকাবেলায় বিশ্বে রোল মডেল। এ বছর ৪ মাসে ৫টি দুর্যোগ আমাদের মোকাবেলা করতে হয়েছে। শুধু আগ্নেয়গিরি ছাড়া আমাদের দেশে বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, ভুমিকম্পসহ সব ধরনের দুর্যোগ মোকাবেলা করতে হয়। অক্লান্ত পরিশ্রম করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক, বিএনসিসি, আনসার, পুলিশ, র্যাব, সেনাবাহিনী সদস্যরা কাজ করে থাকেন। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা যেকোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় সক্ষম। এ কারণেই বাংলাদেশ আজ দুর্যোগ মোকাবেলায় বিশ্বে রোল মডেল হয়েছে।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech