বিশ্ব ইজতেমার শেষ পর্বের আখেরি মোনাজাত সমাপ্ত

  

পিএনএস ডেস্ক:বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ-শান্তি, সমৃদ্ধি ও সংহতি কামনার মধ্য দিয়ে আখেরি মোনাজাতে শেষ হলে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা।

দ্বিতীয় পর্বের মোনাজাতে দেশি-বিদেশি প্রায় ২৫ থেকে ৩০ লাখ মুসল্লি অংশ গ্রহণ করেছেন। এসময় মহান আল্লাহ পাকের অশেষ মহিমায় আবেগাপ্লুত হন লাখো মুসল্লি। অশ্রুসিক্ত নয়নে আল্লাহর নিকট আত্মসমর্পণে ব্যাকুল হয়ে পড়েন তারা।

সকাল ১০টা ২০ মিনিটের পর মোনাজাত শুরু হয়। কাকরাইল মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ জোবায়ের মোনাজাত পরিচালনা করেন।

রোববার ভোর থেকে বয়ান ও জিকির-আসকারের মধ্যদিয়ে চলে ইজতেমার কার্যক্রম। সকাল পৌনে ৮টা থেকে মাওলানা আব্দুল মতিন হেদায়তি বয়ান করেন। হেদায়তি বয়ান শেষে আখেরি মোনাজাত শুরু হয়।

এদিকে নিয়মিত তাবলিগ জামাতের বাইরেও ঢাকা-গাজীপুরসহ ১৬ জেলার কয়েক লাখ মুসল্লি মোনাজাতে অংশ নিয়েছেন। এছাড়া দ্বিতীয় পর্বে ৭৮ দেশের প্রায় চার হাজার মেহমান মোনাজাতে অংশ নিয়েছেন।

এর আগে ১৪ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয় প্রথম পর্ব। আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন বাংলাদেশের কাকরাইল মসজিদের মাওলানা হাফেজ মোহাম্মদ জোবায়ের।

বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বে আমেরিকা, সৌদি আরব, ভারত, পাকিস্তান, তুরস্ক, লেবানন, ফিলিপাইন, আফগানিস্তান, থাইল্যান্ড, আরব আমিরাত, মালয়েশিয়া ও ইংল্যান্ডসহ বিশ্বের ৮৫টি দেশের প্রায় সাড়ে ৪ হাজার বিদেশি মুসল্লি অংশ নিয়েছেন।

ইজতেমার দেশি-বিদেশি মুসল্লিদের নিরাপত্তায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে ইজতেমা ময়দানকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেয়া হয়। প্রায় সাড়ে ৭ হাজার পুলিশ ইজতেমা মাঠে মোতায়েন ছিল।

আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে মুসল্লিদের সুবিধার্থে ১৯টি বিশেষ ট্রেন চলাচল করে। এছাড়া সব আন্তঃনগর ট্রেন টঙ্গীতে যাত্রাবিরতি করে। পাশাপাশি বিআরটিসি স্পেশাল বাস সার্ভিস চালু করে। আখেরি মোনাজাতের দিন ছাড়াও ইজতেমা চলাকালীন টঙ্গী স্টেশনে দ্রুতযানসহ প্রতিটি ট্রেন যাত্রাবিরতি করে।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech