বাংলাদেশ-কসোভোর মধ্যে আনুষ্ঠানিক কূটনীতি চালু

  


পিএনএস ডেস্ক: বাংলাদেশ ও ইউরোপীয় রাষ্ট্র কসোভোর মধ্যে আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক সম্পর্ক চালু করতে যৌথ বিবৃতিতে স্বাক্ষর হয়েছে।

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন একপ্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন ও নিউইয়র্কস্থ কসোভোর কনসাল জেনারেল রাষ্ট্রদূত টেউটা সাহাতকাইজা স্ব স্ব দেশের সরকারের পক্ষে এই যৌথ বিবৃতি স্বাক্ষর করেন।

২০১৭ সালে ২৭ ফেব্রুয়ারি ইউরোপীয় রাষ্ট্র কসোভোকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিয়েছে বাংলাদেশ।

এর আগে ১১৩টি দেশ কসোভোকে স্বীকৃতি দেয়। অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশনের (ওআইসি) ৫৬ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ৩৭তম দেশ হিসেবে রাষ্ট্রটিকে স্বীকৃতি দিয়েছে। সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিতে মন্ত্রিসভার বৈঠকে কসোভোকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

যৌথ বিবৃতি স্বাক্ষর শেষে দুই দেশ এক যৌথ প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বন্ধুত্বের সূদৃঢ় সম্পর্ক, পারস্পারিক সহযোগিতার এবং আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষার ক্ষেত্রেও অবদান রাখবে মর্মে দু’দেশের প্রতিনিধি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

উভয় দেশ জাতীয় সার্বভৌমত্বের প্রতি পারস্পারিক শ্রদ্ধা ও আঞ্চলিক সংহতি বজায় রাখা, অন্য রাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করাসহ জাতিসংঘের নীতিমালা এবং আন্তর্জাতিক আইনসমূহের প্রতি তাদের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করল।

গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসে বাংলাদেশ কসোভোকে সরকারিভাবে স্বীকৃতি দেয়। এছাড়া গত সেপ্টেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭২তম অধিবেশন চলাকালীন কসোভোর রাষ্ট্রপতি হাসিম থাচি সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে কসোভোতে স্বাধীনতা ঘোষণার ১০বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম অংশগ্রহণ করবেন।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech