খালেদা জিয়ার জয়েন্টে জয়েন্টে সমস্যা, হাসপাতালে নিতে হবে: চিকিৎসক

  

পিএনএস ডেস্ক :কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দিতে হবে বলে জানিয়েছেন তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. মো. আবদুল জলিল চৌধুরী।

রবিবার (১৬ সেপেম্বর) স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিবেদন জমা দেয়ার পর সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

ডা. মো. আবদুল জলিল চৌধুরী বলেন, ‘তাঁর শরীরের জয়েন্টে জয়েন্টে সমস্যা দেখা দিয়েছে। হাত-পা কাঁপে। তাকে কারাগারে রেখে চিকিৎসা দেয়া সম্ভব না। হাসপাতালে নিয়ে তাকে চিকিৎসা দিতে হবে।’

মেডিকেল বোর্ডের প্রধান ডা. মো. আবদুল জলিল চৌধুরী শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন এর কাছে জমা দিয়েছেন। গঠিত পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ডের রিপোর্ট কিছুক্ষণের মধ্যেই কারাগারে পৌঁছে যাবে বলে জানা গেছে।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন প্রতিবেদন পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্ট পেয়েছি। কিছুক্ষণের মধ্যেই কারাগারে পৌঁছে দিবো।’

এর আগে শনিবার বিকেলে মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। পরে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, রবিবার (আজ) চিকিৎসকেরা কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে খালেদা জিয়ার জন্য ব্যবস্থাপত্র দেবেন।

উল্লেখ্য, গত ৫ সেপ্টেম্বর কারাগারের ভেতরে স্থাপিত বিশেষ আদালত হুইল চেয়ারে হাজির করা হয় বিএনপি প্রধানকে। এসময় সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমার শারীরিক অবস্থা ভালো না। আমার পা ফুলে গেছে। বসে থাকলে আমার পা ফুলে যাবে। ডাক্তার বলেছে, পা ঝুলিয়ে রাখা যাবে না। এখানে আমি আদালতে বারবার আসতে পারবো না। আপনাদের যা মনে চায়, যতদিন ইচ্ছা সাজা দিয়ে দিন।’

সাংবাদিকদের বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘এ হাতটা ইয়ে (প্যারালাইজড) হয়ে গেছে, ডান পা বাঁকাতে পারি না। আমি খুবই অসুস্থ। ওরা (আদালত) যা খুশি তাই করুক।’

এরপর গত ৯ সেপ্টেম্বর সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে বৈঠক করে মির্জা ফখরুলের নেতৃত্বে বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের প্রতিনিধি একটি দল। সেখানে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা দ্রুত বিশেষায়িত হাসপাতালে করার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে দাবি জানায় বিএনপি।

এসময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিএনপি নেতাদের আশ্বস্ত করে বলেছিলেন- খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় বিশেষ মেডিকেল বোর্ড বসবে। সেখানে চিকিৎসকদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সর্বোচ্চ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠন করা হয় পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড। বোর্ডের প্রধান করা হয় বিএসএমএমইউ’র ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. মো. আবদুল জলিল চৌধুরীকে।

তবে গঠিত এই মেডিকেল বোর্ডে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের রাখা হয়নি। ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের অন্তর্ভুক্ত না করা সরকারের অশুভ পরিকল্পনারই ইঙ্গিতবাহী বলে অভিযোগ করেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech