খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে কোনো নির্বাচন হবে না : মির্জা ফখরুল

  

পিএনএস ডেস্ক : বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ক্ষমতা নয় অধিকার আদায়ের আন্দোলন করছে বিএনপি। অনির্বাচিত সরকারের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে হলে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

তিনি আজ বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মির্জা আলমগীর বলেন, আজকে গণতন্ত্রের জন্য মানুষের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য একটি সুষ্ঠু অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলো, পেশাজীবীদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। অবশেষে পাথর সরানোর জন্য ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। তাকে কারাগারে রেখে কোনো নির্বাচন হবে না, এই সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে । সংসদ ভেঙ্গে দিতে হবে, নির্বাচন কমিশনকে পুনর্গঠন করতে হবে। নির্বাচনের সময় সেনাবাহিনী নিয়োগ দিতে হবে।

জোট গঠনের জন্য গণতান্ত্রিক বাম মোর্চাকে অভিনন্দন জানিয়ে ফখরুল বলেন, গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা রাজনৈতিক ৯ টি দল মিলে জোট গঠন করেছে। সকল গণতন্ত্রকামী রাজনৈতিক দলগুলোকে আহ্বান জানাব ঐক্য গড়ে তোলার। আন্দোলনের মাধ্যমে দাবি আদায় করা হবে, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা হবে।

সরকারের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা সকল দলের অংশগ্রহণে নির্বাচন করবেন না, কারণ আপনারা জানেন নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করলে আপনাদের পরাজয় হবে।

মির্জা আলমগীর আরও বলেন, আজকে বাংলাদেশের প্রত্যকটি মানুষ ভয়ে আছে। তারা জানে না যে কখন গুম হয়ে যায়। কোটা আন্দোলনকারীদের তুলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে, মিথ্যা মামলা দেয়া হচ্ছে। তাদের কারাগারে পাঠানো হচ্ছে।

নির্যাতন করে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়া হচ্ছে। আজকে ছাত্রলীগের যে ভূমিকা খানের শাসনামলে বাহিনীর ভূমিকার চেয়েও ভয়াবহ। আজকে যারা কোটা সংস্কারের জন্য আন্দোলন করছে তাদের মায়েরা বলছে , আমার ছেলের চাকরি চাইনা, আমার ছেলেকে ফিরিয়ে দাও। বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, বাংলাদেশে আজ কেউ নিরাপদ নয়।

আমরা এই অবস্থার পরিবর্তন চাই, বিএনপিকে ক্ষমতায় আনার জন্য নয়, এমপি মন্ত্রী হওয়ার জন্য নয়, এদেশের মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দেবার জন্য আমরা একটা পরিবর্তন চাই।‌ আমরা আমাদের অধিকার ফিরে পেতে চাই। স্বাধীনতা ফিরে পেতে চাই, আমরা নির্ভয়ে চলার অধিকার ফিরে পেতে চাই।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech