নির্বাচনের জন্যই ঐক্যফ্রন্ট গঠিত হয়েছিল: ড. কামাল

  

পিএনএস ডেস্ক: নির্বাচনকে সামনে রেখে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করা হয়েছিল।এখন জনগণের সঙ্গে ঐক্য দরকার বলে মন্তব্য করেছেন ফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন।

সোমবার (২২ জুলাই) জাতীয় প্রেস ক্লাবে দেশের বন্যা পরিস্থিতি ও রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

দেশের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে সরকারবিরোধী সবচেয়ে বড় জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট কোনো কাজ করছে না কেন-সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের একই উত্তর দেন ড. কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, ইলেকশনকে সামনে রেখে কয়েকটা রাজনৈতিক দল নিয়ে ঐক্যফ্রন্ট হয়েছিল। এখন বন্যা মোকাবেলায় আমাদের জনগণের ঐক্য দরকার।

সংবাদ সম্মেলনে আয়োজক গণফোরামের পক্ষ থেকে দেশের বর্তমান বন্যা পরিস্থিতিতে সরকারের ত্রাণ কার্যক্রমকে প্রহসন বলে উল্লেখ করা হয়।

এ বিষয়ে গণফোরাম সভাপতি বলেন, স্বাধীনতার ৪৮ বছর পরেও বন্যার সময়ের সংকটের সমাধান আসছে না। সরকার কোনোভাবেই বন্যা পরিস্থিতি সুষ্ঠুভাবে মোকাবিলা করতে পারছে না। এই পরিস্থিতি মোকাবিলায় সব দলকে নিয়ে জাতীয় সংলাপ আয়োজন করা অপরিহার্য।

ড.কামাল হোসেন বন্যার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর পাশাপাশি জানমালের ক্ষতির জন্য সমবেদনা প্রকাশ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক আবু সাইয়িদ বলেন, গত কয়েকদিন ধরে কুড়িগ্রামে গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর জেনারেল অবসরপ্রাপ্ত আমসা আ আমিনের নেতৃত্বে কয়েকটি রিলিফ টিম কাজ করছে। সেখানে অনেক প্রত্যন্ত এলাকায় ত্রাণ পৌঁছেনি। খাবার নেই, ওষুধ নেই, পানিও নেই। কুড়িগ্রামের ৭০ দশমিক ৮ শতাংশ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে অবস্থান করে। অথচ বন্যাদুর্গত ১২ লাখ লোকের জন্য দেড় সপ্তাহে সরকারের বরাদ্দ হয়েছে জনপ্রতি মাত্র ১ টাকা ১২ পয়সা, ৬৬ গ্রাম চাল ও ৩ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার। এটি রিলিফের নামে প্রহসন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech