এশিয়া কাপ হকির ফাইনালে ভারত

  

পিএনএস ডেস্ক: করাচি, ঢাকার পর দিল্লি জয় করে এশিয়া কাপ হকি নিজেদের করে নিয়েছিল পাকিস্তান। হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের পর আর ট্রফিতে হাত ছোঁয়াতে পারেনি হাসান সরদারের দেশ। পরের ৬ আসরে ৩ বার রানার্সআপ হওয়াই ছিল তাদের বড় সাফল্য। ৩২ বছর পর আবার এশিয়া কাপ ঢাকায়। যে শহরটি তাদের উপহার দিয়েছিল দ্বিতীয় ট্রফি।

অষ্টম আসরে সর্বশেষ ফাইনালে খেলা পাকিস্তানের জন্য ঢাকা আর পয়মন্ত ভেন্যু থাকলো না। দশম আসরে তাদের খেলতে হবে তৃতীয় স্থানের জন্য। শনিবার মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত সুপার ফোরের নিজেদের শেষ ম্যাচে ভারত ৪-০ গোলে শোচনীয়ভাবে পাকিস্তানকে হারিয়ে জায়গা করে নিয়েছে ফাইনালে। এ নিয়ে পরপর দুইবার ফাইনালে উঠলো ভারত। আরো একবার ব্যর্থতার খাতায় নাম লেখালো পাকিস্তান।

পাকিস্তানের শুরুটা ছিল ঝড়ের গতিতে। প্রথম দুই কোয়ার্টারে তিনবারের চ্যাম্পিয়নরা আধিপত্য নিয়েই বারবার হানা দিয়েছে ভারতের রক্ষণে। তিন তিনটি পেনাল্টি কর্নারও প্রথমার্ধে আদায় করে নেয় তারা। কিন্তু একটিও কাজে লাগাতে পারেনি এ টুর্নামেন্টে নিজেদের সেভাবে তুলে ধরতে না পারা পাকিস্তান। শুরুর সুযোগগুলো কাজে লাগাতে না পারার খেসারত তারা দিয়েছে দ্বিতীয়ার্ধে।

ভারত দ্বিতীয়ার্ধে পুরোপুরি খেলাটা ধরে নিয়ে একের পর এক আক্রমণ তৈরি করে। যার ফলও তারা পেয়ে যায় ৩৯ মিনিটে। ডান দিক দিয়ে শ্যুটিং সার্কেলে ঢুকে পোস্টে হিট নেন সাতবির সিং। বলটি ঠেকানোর চেষ্ট করেও পারেননি পাকিস্তানের গোলরক্ষক মাজহার আব্বাস। বল চলে জালে।

এগিয়ে যাওয়ার পর ভারত আরো আক্রমণাত্মক হয়ে উঠে। শুরুর গতিটা আর ধরে রাখতে পারেনি পাকিস্তান। সময় গড়ানোর সাথে সাথে ম্যাচ থেকেই যেনো ছিটকে পড়তে থাকে ৩২ বছর আগে এই ঢাকা থেকে দ্বিতীয় এশিয়া কাপের ট্রফি উড়িয়ে নেয়া পাকিস্তান। অনেকটা হাল ছেড়ে দেয়ার মতো।

৫১ মিনিটে ইয়াকুব মোহাম্মদ বিপদজনক ফাউল করে মাঠ ছেড়ে চলে যান এবং ভারতকে উপহার দেন পেনাল্টি কর্নার। শেষ কোয়ার্টারের প্রথম পেনাল্টি কর্নার থেকেই ব্যবধান বাড়িয়ে নেয় দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা। গোল করেন হারমানপ্রীত সিং।

১০ জনের পাকিস্তানকে পেয়ে আক্রমণের ধারটা বাড়িয়ে দেয় ভারত। তৃতীয় গোল পেতে সময় নেয় তারা মাত্র ১ মিনিট। ললিত উপধায়ের গোলের পরই ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় পাকিস্তান। তাদের ব্যর্থতার কফিনে ভারত শেষ পেরেকটি পুঁতে দেয় ৫৭ মিনিটে। আক্রমনের ধারা অব্যাহত রেখে ফাইনালিস্টদের চতুর্থ গোলটি করেন গুরজান্ত সিং।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech