দ্বিতীয় সারির ভারতীয় দলের কাছে হারল শ্রীলংকা

  19-07-2021 12:32AM

পিএনএস ডেস্ক : ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও বিজেপির সংসদ সদস্য নিশীথ প্রামাণিক বাংলাদেশের নাগরিক কিনা তা নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। এ বিষয়ে নরেন্দ্র মোদিকে একটি চিঠি লিখেন কংগ্রেসের একজন সিনিয়র নেতা ও আসামের সাংসদ রিপুন বোরা। যাতে দাবি জানানো হয়, প্রামাণিক মিথ্যা হলফনামা দিয়ে নিজেকে ভারতীয় বলে দাবি করেছেন কি না - তার জন্ম কোচবিহারে না কি বাংলাদেশের গাইবান্ধায় তার সঠিক তদন্ত করা দরকার। সম্প্রতি নরেন্দ্র মোদির নতুন মন্ত্রীসভায় দায়ীত্ব গ্রহণ করেন নিশীথ প্রামাণিক।

এদিকে এ দাবিকে সমর্থন করছে পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল। তারা বলছে, একজন বাংলাদেশিকে মন্ত্রিসভার সদস্য করা হয়ে থাকলে মোদি সরকার দেশের নিরাপত্তার সঙ্গে আপস করেছে। যদিও তৃণমূলের এই বক্তব্য সরাসরি নাকচ করেছে বিজেপি। তাদের দাবি নিশীথ প্রামাণিকের নাগরিকত্ব নিয়ে সন্দেহ থাকলে আদালতে যেতে পারেন যে কেউ।

মাত্র পঁয়ত্রিশ বছর বয়সী এই বিজেপি নেতা মন্ত্রিসভার একজন তরুণ মুখ। শুধু তাই নয় প্রথমবার মন্ত্রী হয়েই তিনি পেয়েছেন গুরুত্বপূর্ণ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রী বা অমিত শাহ-র ডেপুটির দায়িত্ব। মাত্র দুবছর আগে বিজেপিতে যোগদান করলেও দল যে তাকে কতটা গুরুত্ব দিচ্ছে তা তার এই রাজনৈতিক উত্থানের মধ্যে দিয়েই প্রমাণিত।

কিন্তু কেন্দ্রে মন্ত্রী হওয়ার পর এক সপ্তাহ যেতে না-যেতেই কোচবিহারের এই বিজেপি সাংসদের নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আসামের কংগ্রেস নেতা ও রাজ্যসভার সাংসদ রিপুন বোরা।

সম্প্রতি তিনি ভারতে প্রতিমন্ত্রী হওয়ার তার গাইবান্ধার গ্রামে উল্লাসের ছবি কোনও কোনও গণমাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়। এই অভিযোগের সূত্র ধরে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেছে পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস। কারণ দুবছর আগে নিশীথ প্রামাণিক তৃণমূলের নেতা ছিলেন।

তবে এ বিতর্ক নিয়ে এখন পর্যন্ত মুথ খোলেননি স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক। এমনটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও না। যদিও মাধ্যমটিতে তার রযেছে ব্যাপক উপস্থিতি।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন