বীরগঞ্জে অপহরনের ২মাস পর পাগলীর শিশু উদ্ধার

  

পিএনএস, দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের বীরগঞ্জের ১ বুদ্ধিপ্রতিবন্ধীর ৩মাসের শিশু অপহরনের ২মাস পর জামালপুর হতে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

উপজেলার পাল্টাপুর ইউনিয়নের ভোগডোমা গুচ্ছগ্রামহাট এলাকার আঃ জলিলের বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী কন্যা পিয়ারা খাতুন (১৫) কে বিবাহের প্রলোভন দেখিয়ে প্রতিবেশী ৩ সন্তানের জনক দুলু মিয়া ধর্ষন করে। পরে ঘটনাটি জানাজানির একপর্যায়ে প্রতিবন্ধী পিয়ারা গর্ভবতী হয়। পরে দুখুমিয়া বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় ১৪ অক্টোবর/১৭ সালে আদালতে ১টি মামলা হয়। যার জি.আর নং- ২৩৪/১৭। মামলা চলমান অবস্থায় প্রতিবন্ধী পিয়ারা ১৫ জানুয়ারী/১৮ সালে ১টি কন্যা সন্তানের জন্ম দেয়।

১৮ ফেব্রুয়ারী সকালে খানসামা উপজেলার পশ্চিম বাসুলী গ্রামের মৃত আছমত আলীর স্ত্রী হোসনেয়ারা বেগম বাচ্চাটিকে অপহরন করে নিয়ে যায়। বাচ্চাটিকে না পেয়ে ১১মার্চ বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী পিয়ারা পিতা আঃ জলিল বাদী হয়ে আদালতে ১টি শিশু অপহরন মামলা দায়ের করে। আদালতের নির্দ্দেশে ২৩ মার্চ বীরগঞ্জ থানায় মামলাটি রুজু করে। যার নং ১৭।

মামলা তদন্তকারী অফিসার এসআই আমজাদ হোসেন অপহরনকারী হোসনেয়ারা বেগমকে আটোক করে জিজ্ঞাসা বাদের তথ্য অনুযায়ী এসআই আমজাদ হোসেন এর নেতৃত্বে পুলিশের ১টি টিম ১৯ এপ্রিল জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ঝালুরচর এলাকার মৃত মকবুল হোসেনের পুত্র শাহাজান আলীকে গ্রেফতার করে অপহরনকৃত ৩ মাসের শিশুটিকে উদ্ধার করে বীরগঞ্জ থানায় নিয়ে আসে।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech