লক্ষ্মীপুরে মেঘনার বাঁধে ফের ধস; আতঙ্কে এলাকাবাসী - মফস্বল - Premier News Syndicate Limited (PNS)

লক্ষ্মীপুরে মেঘনার বাঁধে ফের ধস; আতঙ্কে এলাকাবাসী

  



পিএনএস ডেস্ক: লক্ষ্মীপুরের কমলনগর মেঘনা নদীর তীর রক্ষা বাঁধে ফের ধস দেখা দিয়েছে। গত দুই দিনে নদীর জোয়ারের পানির প্রবল স্রোতে ভেঙে গেছে বাঁধের দক্ষিণ অংশ। হুমকির মুখে রয়েছে পুরো বাঁধ। বর্ষার শুরুতেই বাঁধে ধস দেখা দেয়ায় আতঙ্কে রয়েছে কমলনগর উপজেলার প্রায় দু’লক্ষাধিক মানুষ।

রবিবার ও সোমবার উপজেলার মাতাব্বর হাট এলাকায় নির্মাণাধীন মেঘনা তীর রক্ষা বাঁধে ধসে পড়েছে। এতে নদীতে ভেঙে পড়েছে ব্লক বাঁধের প্রায় দুইশ’ মিটার। গত বর্ষা মৌসুমেও ওই বাঁধে পাঁচবার ধসে পড়ার ঘটনা ঘটেছে।

সরজমিনে দেখা গেছে, দু’দিনের নদীর প্রবল জোয়ার ও ঢেউয়ের আঘাতে এক কিলোমিটার নির্মাণাধীন বাঁধের দু’পাশে ব্লক ধসে পড়ছে। এছাড়া ব্লক থেকে ব্লকের দূরত্ব বাড়ায় বাঁধের বেশকিছু অংশ ফাঁকা হয়ে গেছে। এতে করে বাঁধ দুর্বল হয়ে পড়েছে। ধস ঠেকাতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে জিও ব্যাগ (বালু ভর্তি বিশেষ ব্যাগ) ডাম্পিং করতে দেখা গেছে।

স্থানীয়রা জানায়, নদীর তীর রক্ষা বাঁধের দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজ শুরু না হওয়ায় বাঁধের দু’পাশের এলাকায় অব্যাহতভাবে ভাঙছে। আশপাশের এলাকায় ভাঙনের কারণে বাঁধ ধসে পড়েছে।

তারা আরো জানায়, কমলনগরে নদী ভাঙন রোধে মাত্র এক কিলোমিটার বাঁধ নির্মাণ হয়েছে। এ উপজেলা রক্ষায় তা যথেষ্ট নয়। প্রয়োজন আরও ৮ কিলোমিটার বাঁধ। যেটুকু বাঁধ হয়েছে তাতেও নানা অনিয়ম হয়েছে।

জানা যায়, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান যথাযথভাবে ডাম্পিং না করেই বাঁধ নির্মাণ করেছে। বাঁধ নির্মাণে ব্যবহার করা হয়েছে নিম্নমানের বালু ও জিও ব্যাগ। এ কারণে গত বছর বাঁধে পাঁচবার ধস নামে। এছাড়া অন্যত্র থেকে মাটি সংগ্রহ করে বাঁধ নির্মাণ করার কথা থাকলেও নদীর তীর থেকে মাটি উত্তোলন করে বাঁধ নির্মাণ করায় বারবার বাঁধে ধস নামছে। তাই এবার বর্ষার শুরুতেই ফের ধস দেখা দেয়ায় আতঙ্কে রয়েছে কমলনগর উপজেলার দুই লক্ষাধিক মানুষ।

বাঁধ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান ওয়েস্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ইনর্চাজ নুরুল আফছার বলেন, বাঁধ রক্ষায় কাজ চলছে।
স্থানীয় সংসদ সদস্য মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, ১৪৮ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। প্রকল্পটি হাতে পেলে দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজ শুরু করা হবে। আশা করি, অল্প কয়েকদিনের মধ্যে কাজ শুরু করা যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech