মৃত্যুর ১৫ দিন পর মামলা দায়ের

  

পিএনএস,পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : মৃত্যুর ১৫ দিন পর পাইকগাছায় খুলনার বি এল কলেজ ছাত্রী গৃহবধু সোনালী বিশ্বাস হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। নিহতের পিতা নিতাই বিশ্বাস বাদী হয়ে পাইকগাছা থানায় জেলহাজতে আটক স্বামী, শ্বশুর ও শ্বাশুড়ী, দেবরের বিরুদ্ধে হত্যা মামলাটি করেছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই অখিল সরকার ময়না তদন্ত রিপোর্টের উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, সোনালীর মাথায় ও হাটুতে শক্ত কিছু পদার্থের আঘাতে মৃত্যু হয়েছে। এদিকে, মৃত্যুর পূর্বে কাকাতো ছোট ভাই মিঠুর মেসেঞ্জারে সোনালী সুসাইট নোটে ‘লিখেছিলেন প্রেম করে বিয়ে করা বড়ই ভুল হয়েছে এবং আমার মৃত্যু হলে স্বামী রবিনই দায়ী থাকবে, তাকে তোরা জেলের ভাত খাওয়াবী।’ এ নোট ও বেশ কিছু আলামতের ভিত্তিতে এ হত্যা মামলার তদন্ত চলছে বলে ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব জানিয়েছেন।

স্থানীয় অনেকে নাম না প্রকাশ শর্তে জানান, সোনালীর উপর নজর পড়ে লম্পট শ্বশুরের। স্বামী রবিন মাদকাসক্ত। বিভিন্ন সময় শ্বশুরের উত্ত্যক্তের কথা স্বামী, শ্বাশুড়ী, দেবর এমনি কি স্বামীকে জানালে তারা কোনো কর্ণপাত করেনি। উল্টো সোনালীকে বিভিন্ন সময় শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন করা হতো। ঘটনার দিন সকালে সোনালী গোসল নেরে ঘরে পোশাক পরিবর্তনের সময় পিছন দিক থেকে লম্পট শ্বশুর জাপটে ধরে। চিৎকার করলে মুখ বেধে শ্বশুর, শ্বাশুড়ী ও দেবর তাকে মারপিট করে। এক পর্যায় মারা গেলে তাকে স্বামী, শ্বশুর, শ্বাশুড়ী ও দেবর মিলে ওড়না পেচিয়ে ঝুঁলিয়ে দেয়।

উল্লেখ্য, প্রেম করে আনুষ্ঠানিক বিয়ের দেড় মাসের মধ্যে গত ২৮ আগস্ট বিএল কলেজে অর্নাস পড়–য়া সোনালী বিশ্বাসের স্বামীর বসত ঘরে গলায় ওড়নায় ঝুলানো লাশ উদ্ধার হয়। ঐদিন হাসপাতালে মৃত মেয়েক দেখে কাঁন্নায় ভেঙে সোনালী পিতা জেলার ডুমুরিয়ার আইতলা গ্রামের নিতাই বিশ্বাস অভিযোগ করেন, মেয়েকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বি এল কলেজে পড়া অবস্থায় প্রেম করে একই কলেজ ছাত্র পাইকগাছার বোয়ালিয়ার ব্রিজ সংলগ্ন বাবুলাল বিশ্বাসের ছেলে রবিন বিশ্বাসের সাথে তার বিয়ে হয়।

সোনালীর মৃত্যুতে প্রথমে অপমৃত্যু ও সর্বশেষ ময়না তদন্ত রিপোটের পর পিতা নিতাই বিশ্বাস ১২ সেপ্টেম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধনী) ২০০৩ (ক)/৩০ ধারায় স্বামী রবিন, শ্বশুর বাবুলাল, শ্বাশুড়ী সুমিত্রা ও দেবর প্রবীরের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন, যার নং-৩০। ঘটনার দিনই পুলিশ স্বামী ও শ্বশুরকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠায়।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech