সন্তানকে বাঁচিয়ে চলে গেলেন মা

  

পিএনএস ডেস্ক: কুমিল্লার ময়নামতির হরিণধরা এলাকায় লেগুনা ও যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে বৈশাখী পাল (৩০) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। এ সময় মায়ের কোলে থাকা শিশু সন্তানটি অলৌকিকভাবে বেঁচে যায়।

এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও পাঁচজন। দুর্ঘটনার সময় ১৪ মাস বয়সী ছেলে সন্তান প্রেরণা চন্দ্র পালকে কোল থেকে ফেলেননি মা বৈশাখী পাল। পরে দুর্ঘটনায় আহতদের উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বুধবার দুপুরে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি হরিণধরা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত বৈশাখী পাল জেলার বুড়িচং উপজেলার রামপুর গ্রামের মানিক চন্দ্র পালের স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্র জানায়, মহাসড়কের হরিণধরা এলাকায় লেগুনার সঙ্গে কোম্পানীগঞ্জগামী সুগন্ধা পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই লেগুনার যাত্রী মা বৈশাখী পাল নিহত হন। তবে মায়ের মৃত্যু হলেও অলৌকিকভাবে বেঁচে যায় কোলে থাকা ছোট্ট শিশুটি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ময়নামতি হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান বলেন, কুমিল্লার মুরাদনগর থেকে কোম্পানীগঞ্জগামী সুগন্ধা পরিবহনের নামে একটি বাসের সঙ্গে লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে। এ সময় লেগুনার যাত্রী বৈশাখী পাল নিহত হন। কিন্তু ওই সময় মায়ের কোলে থাকা শিশু সন্তানটি অলৌকিকভাবে বেঁচে যায়।

তিনি আরও বলেন, এ দুর্ঘটনায় আহত হন আরও পাঁচ যাত্রী। দুর্ঘটনায় নিহত ওই নারীর ১৪ মাস বয়সী শিশুসহ পাঁচজনকে চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ি দুটি আটক করে থানায় নিয়ে এসেছে পুলিশ।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech