ভালোবাসা দিবসই জীবন শেষ তরুণীর

  

পিএনএস ডেস্ক: ভালোবাসা দিবসে স্বামীর সঙ্গে ঘুরতে বের হয়ে লাশ হলেন পুতুল আক্তার (১৮) নামে নববিবাহিত এক তরুণী। শুক্রবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার কোড্ডা সড়ক সেতুর কাছে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মারা যান তিনি। নিহত পুতুল জেলার আখাউড়া উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের দেলোয়ার মিয়ার স্ত্রী। এ ঘটনায় গুরুতর আহত দেলোয়ারকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

নিহতের পারিবারের লোকজন জানিয়েছেন, গত দুই মাস আগে আখাউড়া উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের নাসির মিয়ার ছেলে ওমান প্রবাসী দেলোয়ারের সঙ্গে একই উপজেলার মাঝিগাছা গ্রামের মানিক মিয়ার মেয়ে পুতুলের বিয়ে হয়। ভালোবাসা দিবস উদযাপন করতে শুক্রবার সন্ধ্যায় মোটরাইকেলে স্ত্রী পুতুলকে নিয়ে ঘুরতে বের হন দেলোয়ার। দ্রুত গতিতে মোটরসাইকেল চালানোর কারণে কোড্ডা সড়ক সেতুর কাছে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন দেলোয়ার। এ সময় মোটরসাইকেলটি সড়কের পাশে খাদে পড়ে গুরুতর আহত হন তারা দুইজন। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্ত্যবরত চিকিৎসক পুতুলকে মৃত ঘোষণা করেন।

সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক এ.বি.এম মুসা জানান, মাথায় আঘাতের কারণে পুতুলের মৃত্যু হয়েছে। দেলোয়ারের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পিএনএস/হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech