ছেলের হাতে মার খেয়ে অপমানে মায়ের আত্মহত্যা

  

পিএনএস ডেস্ক : নাটোরের সিংড়া উপজেলায় ছেলে ও পুত্রবধূর হাতে মার খেয়ে অপমানে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করলেন মা। সোমবার (০১ জুন) বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে সিংড়া উপজেলার মাঝগ্রামে। আত্মহত্যাকারী জুলেখা বেগম (৪৭) একই গ্রামের শহিদুল ইসলামের স্ত্রী।

মৃত জুলেখার স্বামী শহিদুল ইসলাম জানান, তার ছেলে জুয়েল রানা সম্প্রতি প্রেম করে ফাতেমা নামে এক মেয়েকে বিয়ে করেন। এ নিয়ে পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হয়। বাড়িতে অশান্তি লেগেই ছিল। শহিদুল ইসলাম গতকাল রোববার বাড়িতে ছিলেন না। এ সময় ঝগড়ার একপর্যায়ে তার ছেলে জুয়েল রানা, জুয়েলের ভায়রা সজীব এবং জুয়েলের স্ত্রী ফাতেমা বেগম মিলে জুলেখা বেগমকে মারধর করেন। ঘটনার পর থেকে জুলেখা না খেয়ে খাকেন। সোমবার সারাদিন কিছু না খেয়ে থাকার পর বিকেল ৪টার দিকে ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন জুলেখা।

সিংড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আলম সিদ্দিকী বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন