নন্দীগ্রামে ট্রাক চাপায় নারীর মৃত্যু

  

পিএনএস ডেস্ক : ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফেরার পথে ট্রাক চাপায় নিহত হয়েছেন এনজিও কর্মী শাপলা খাতুন (২৮)। এঘটনায় আহত হয়েছেন তার স্বামী তাইজুল ইসলাম ও শিশু কন্যা সিদ্দিকা (৭)।

শুক্রবার সকাল পৌনে ৯ টায় বগুড়া-নাটোর মহাসড়কে নন্দীগ্রাম উপজেলার রনবাঘা নামক স্থানে দুর্ঘটনাটি ঘটে। হতাহতরা বগুড়া জেলার দুপচাঁচিয়া উপজেলার মালবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা।

জানা গেছে, নিহত শাপলা খাতুন পাবনা জেলার ঈশ্বরদীতে টিএমএসএস নামের একটি এনজিওতে চাকরি করতেন। ঈদের ছুটিতে স্বামীর সাথে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে রনবাঘা মিজান অটো রাইচ মিলের সামনে পাবনাগামী একটি পাথর বোঝাই ট্রাক মোটরসাইকেলটিকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে শাপলা খাতুন ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। তার স্বামী ও সন্তান মোটরসাইকেলসহ রাস্তার পার্শ্বে ছিটকে পড়ে গিয়ে আহত হন। স্থানীয় লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে দেন।

বগুড়ার নন্দীগ্রাম হাইওয়ে কুন্দারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইফুল ইসলাম জানান দুর্ঘটনার পরপরই ট্রাক পালিয়ে গেছে। ট্রাকটি আটকের জন্য বিভিন্ন থানায় বার্তা পাঠানো হয়েছে।

পিএনএস/এসআইআর


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন