ব্র্যাক কার্যালয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা!

  

পিএনএস ডেস্ক : রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলায় বুড়ীরহাট ব্র্যাক শাখা কার্যালয়ে হাফিজা খাতুন (৩৪) নামে এক গৃহবধূর গলায় ফাসঁ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। তিনি ব্র্যাকের ওই শাখার পিওন নুর আলমের স্ত্রী।

জানা গেছে, স্বামীর সঙ্গে হাফিজার কয়েকমাস ধরে মনোমালিন্য চলছিল। আজ বুধবার সকাল ১০টায় হাফিজা খাতুন বুড়িরহাট ব্র্যাক শাখা কার্যালয়ে আসেন। তিনি ওই শাখার ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলামকে স্বামীর নুর আলমের সঙ্গে মনমালিন্যের কথাগুলো বলেন। এ সময় তিনি সবার সামনেই আত্মহত্যার করার হুমকি দেন। এক পর্যায়ে, কার্যালয়টির মেহমানদের কক্ষে গিয়ে দরজা লাগিয়ে দেন। ওই কক্ষেই তিনি গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।

বুড়ীরহাট ব্র্যাক শাখার ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ‘সকাল বেলা হাফিজা অফিসে এসে আমার সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন। এরপর কখন তিনি আত্মহত্যা করেন তা আমাদের কেউই জানি না। মেহমানদের বসার কক্ষ বন্ধ পেয়ে আমরা থানা পুলিশকে খবর দেই।’

হাফিজা খাতুনের স্বামী নুর আলম বলেন, ‘যখন সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে তখন আমি অফিসে ছিলাম না।’

হাফিজা খাতুনের বাবা তৈয়ব আলীর সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, বিয়ের পর থেকে আমার মেয়েকে নানাভাবে নির্যাতন করে আসছে নুর আলম। আমি পিতা হিসেবে আমার মেয়ের তদন্ত সাপেক্ষে সুষ্ঠু বিচার কামনা করছি।

তারাগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফারুক আহম্মেদ বলেন, ‘গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তরে জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় তারাগঞ্জ থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।’

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন