দুর্বৃত্তের ককটেল বিস্ফোরণ; আটক ২

  

পিএনএস ডেস্ক: ভোলার চরফ্যাশনের শশীভুষণ থানার উত্তর শশীভুষণ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে পাকা সড়কের উপর ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১১আগস্ট) সকালে উপ-পরিদর্শক বিপুল চন্দ্র বাদী হয়ে রসুলপুর ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি সোহরাব হোসেন সুমন ও রসুলপুর ডিগ্রী কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি হেলাল, ছাত্রদল নেতা জামিনুল ইসলাম প্রিন্স, যুবদল নেতা সুমন ও নেছারকে চিহ্নিত করে এবং ৮০/৯০ অজ্ঞাত আসামী করে শশীভুষণ থানায় বিস্ফোরক আইন ও সরকারি কাজে বাঁধা প্রদান এবং সরকার বিরোধী কার্যকালাপের অপরাধে মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ এই ঘটনায় ছাত্রদল নেতা জামিনুল ইসলাম প্রিন্স ও যুবদল নেতা নেসার উদ্দিনকে গ্রেফতার করে।

শশীভুষণ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হানিফ সিকদার জানান, বুধবার রাতে রসুলপুর ইউনিয়নের উত্তর শশীভুষণ সরকারী প্রাথিমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন কলমী মোড় এলাকায় দুর্বৃত্তরা সরকার বিরোধী কার্যকালাপ ঘটানোর উদ্দেশ্যে সংঘবদ্ধ হয়ে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় এমন সংবাদ পেয়ে পুলিশ অভিযানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দুর্বৃত্তরা পুলিশকে লক্ষ্যকরে ৩টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় এবং ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। পুলিশও আত্মরক্ষার জন্য দুর্বৃত্তদের লক্ষ্য করে শর্টগানের ৪ রাউন্ড গুলিছুঁড়ে। পুলিশের তোপের মুখে দুর্বৃত্তরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

এই ঘটনায় আহত ৪ পুলিশ সদস্য উপ-পরিদর্শক আবুল হেসেন, উপ-পরিদর্শক পবিত্র কুমার, সহকারি উপ-পরিদর্শক আবুয়াল, কনেস্টবল রুবেল হেসেন এবং পুলিশের সহায়তাকারি স্থানীয় জহির আহমেদ, মাকসুদুর রহমান, ও রহমত আলীকে চরফ্যাশন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তাঁরা ইট-পাটকেলের আঘাতে আহত হয়েছেন। ঘটনার পর ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ চরকলমী ইউনিয়নের নংলাপাতা গ্রামের মৃতঃ শরিফ মুনসীর ছেলে জামিনুল ইসলাম প্রিন্স ও এওয়াজপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের সাদেক মুনসীর ছেলে নেসার উদ্দিন নামের ২জনকে আটক করেছে। আটককৃত ২জনকে বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech