রাজধানীতে ইলিশের দামে আগুন

  

পিএনএস ডেস্ক: রাজধানীর বাজারে তিনদিন আগের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ দামে বিক্রি হচ্ছে প্রতিহালি ইলিশ। দাম বৃদ্ধির কারণ হিসেবে সরবরাহ কমের কথা জানালেন বিক্রেতারা। তবে সপ্তাহ ব্যবধানে মাংসের বাজারে নেই দরদামের কোন ওঠানামা। ওদিকে মনিটরিংয়ের অভাবে শুক্রবারে সবজির দাম বেড়ে গেছে।

শুক্রবার রাজধানীর মহাখালীর এই কাঁচাবাজার ঘুরে জানা গেল বেশিরভাগ সবজির দাম-ই বেড়েছে গেল সপ্তাহের তুলনায়। বাজারে আসা ক্রেতাদের অভিজ্ঞতা, সপ্তাহের অন্য দিনের তুলনায় শুক্রবার এমনিতেই বেড়ে যায় সবজির দাম। এজন্য দায়ী মনিটরিংয়ের অভাব। তবে এক্ষেত্রে বিক্রেতাদের ঢাল, বাড়তি চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কমের অজুহাত। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে বৈরি আবহাওয়া।

কয়েকজন ক্রেতা অভিযোগ করেন, 'প্রতি শুক্রবার শাক-সবজির দাম বেড়ে যায়। কেজি প্রতি ১০ থেকে ১২ টাকা বাড়ে বলে তাদের অভিযোগ। এসময় তারা বলেন, পাইকারির সাথে খুচরার সমন্বয় করে যথাযথ মনিটরিং করলে ক্রেতারা সুবিধা পাবে’।

অন্যদিকে একজন বিক্রেতার সাথে কথা বলে জানা যায়, মালের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে কিন্তু বৃষ্টির কারণে তা নামানো যাচ্ছে না।

মাছের বাজারে কয়েক সপ্তাহ ধরেই ক্রেতাদের স্বস্তি দিয়েছে যে ইলিশ, তিনদিন আগের তুলনায় সেই ইলিশ বিক্রি হচ্ছে প্রায় দ্বিগুণ দামে। কারণ হিসেবে বিক্রেতারা জানালেন, ঘাটে মাছ কম সেই সঙ্গে রয়েছে মজুদদারদের দৌরাত্ম। রুই,কাতলা, চিংড়ি বোয়ালের দাম নিয়ে রয়েছে ক্রেতা-বিক্রেতার ভিন্ন কথা।

বিক্রেতারা বলেন, 'ঘাটে ইলিশের মজুদ কম। এছাড়া আমরা কিছু দিন আগে যে ইলিশ হালি প্রতি ৩২০০ টাকা দিয়ে কিনেছি এখন তা ৫০০০ টাকা দিয়ে কিনতে হচ্ছে’।

এ প্রসঙ্গে ক্রেতারা বলেন, বৃহস্পতিবার থেকে মাছের দাম আশ্চর্যজনকভাবে বেড়ে গেছে। সকল ধরনের মাছের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে ইলিশের দাম দ্বিগু হয়েছে বলে জানান তারা।

স্থিতিশীল মাংসের বাজারে প্রতিকেজি ব্রয়লার ১৩৫, গরু ৫শ আর খাসির মাংস বিক্রি হচ্ছে সাড়ে ৭শ টাকায়।


পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech