প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করায় কারাগারে চবি শিক্ষক

  



পিএনএস ডেস্ক: ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটূক্তি করার অভিযোগে দায়ের হওয়া আইসিটি মামলায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাইদুল ইসলামকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

উচ্চ আদালতের আট সপ্তাহের জামিন শেষে সোমবার চট্টগ্রামের জেলা ও দায়রা জজ মো. ইসমাইল হোসেনের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন শিক্ষক মাইদুল ইসলাম। শুনানি শেষে আদালত জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মাইদুল ইসলামের আইনজীবী দুলাল লাল ভৌমিক জানান, গেল ছয় আগস্ট বিচারপতি ইনায়েতুর রহিম ও মো. মোস্তাফিজুর রহমানের দ্বৈত বেঞ্চ ফেইসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তির অভিযোগে আইসিটি আইনের ৫৭ ধারার একটি মামলায় শিক্ষক মাইদুল ইসলামকে আট সপ্তাহের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দিয়েছিলেন। এ সময়ের মধ্যে তাকে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলেন উচ্চ আদালত।

তিনি আরও বলেন, আদালতের প্রতি সম্মান জানিয়ে সোমবার সকালে মাইদুল নিম্ন আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

প্রসঙ্গত, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (ফেসবুকে) কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করে স্ট্যাটাস দেয়ার অভিযোগে গেল ২৩ জুলাই শিক্ষক মাইদুল ইসলামের বিরুদ্ধে হাটহাজারি থানায় তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় মামলা করেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ইফতেখারুল ইসলাম।

সেইসময় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষে ফেইসবুকে পোস্ট দেয়ায় মাইদুল ইসলামসহ যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক খ. আলী আর রাজীকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে ছাত্রলীগ।

তাদের চাকরিচ্যুত করার দাবি জানিয়ে উপাচার্যের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছিলেন ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি আলমগীর টিপু।

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের হুমকির কারণে ক্যাম্পাস ছেড়ে নিরাপত্তা চেয়ে প্রক্টরের কাছে আবেদন জানিয়েছিলেন শিক্ষক মাইদুল ইসলাম।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech