নতুন শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিল ঢাকা ডেন্টাল কলেজ

  

পিএনএস ডেস্ক :সম্প্রতি অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ মোঃ হুমায়ুন কবীর এর সভাপতিত্বে ডাঃকামরুন নাহারের সঞ্চালনায় ঢাকা ডেন্টাল কলেজের ডি-৫৬ ব্যাচের "শিক্ষা কার্যক্রম উদবোধন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাকা ডেন্টাল কলেজে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে ওরাল এন্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারী বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ মোরশেদ আলম তালুকদার নবাগত ব্যাচের সকলের পরিচয় পর্ব সম্পাদন করেন এবং নবাগত সকলকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয় ।

এ সময় প্রথমবারের মত রুটিন, একাডেমীক ক্যালেন্ডার, শিক্ষক-পরিচিতি এবং নূতন কারিকুলাম সম্বলিত একাডেমিক ম্যানুয়েল প্রদান করা হয়।মিডিয়া প্রেজেন্টেশন এর মাধ্যমে কলেজের অবকাঠামোগত উন্নয়ন এবং একাডেমিক অগ্রগতিমূলক প্রেক্ষাপট তুলে ধরা হয়।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ঢাকা ডেন্টাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ মোঃ জাহিদুর রহমান, উপাধ্যক্ষ ডাঃ মোঃ মোশাররফ হোসেন খন্দকার, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ এস এম ইকবাল হোসাইন এবং মহাসচিব ডাঃ মোঃ নাসিরুল ইসলাম।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন ডেন্টাল এনাটমী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডাঃ মোঃ ফারুক, সাইন্স অব ডেন্টাল ম্যাটেরিয়ালস এর বিভাগীয় প্রধান ডাঃ সালেহা পারভীন, ফিজিওলজি ও বায়োকেমিস্ট্রি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ আসমা খাতুন এবং এনাটমী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন।

অনুষ্ঠানটিতে উপস্থিত ছিলেন কনজারভেটিভ ডেন্টিস্ট্রি এন্ড এন্ডোডন্টিক্স বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপিকা ডাঃ উম্মে কুলসুম, ওরাল এন্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপিকা ডাঃ ইসমত আরা হায়দার ও অন্যান্য বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষীকাবৃন্দ।

অনুষ্ঠান মঞ্চে নবাগত ব্যাচের ইমরোজ এবং নাজিমুদ্দিন নিজেদের বিডিএস এ চান্স পাওয়া এবং ভর্তি হবার অভিজ্ঞতা ব্যক্ত করে পাশাপাশি অভিভাবকদের মধ্যে দুজন বক্তব্য রাখেন।

ঢাকা ডেন্টাল কলেজের প্রতিষ্ঠাকালের যাত্রা থেকে শুরু করে কলেজের বর্তমান অবস্থা , ছাত্র/ছাত্রী হোস্টেল , বিভিন্ন ডিপার্টমেন্ট , হসপিটাল , ইত্যাদি বিষয়ের পরিচিতি ও তুলে ধরা হয় অনুষ্ঠানটিতে।

সমাপনি বক্তব্যে প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ মোঃ হুমায়ূন কবীর বুলবুল বলেন, “বর্তমান সরকার সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করছে। এই শিক্ষাঙ্গন এ একজন শিক্ষার্থী প্রবেশ করে ডাক্তার হবার মহান ব্রত নিয়ে। আর এই চলার পথে শিক্ষক হিসেবে যেমন আমাদের দায়িত্ব রয়েছে তেমনি অভিভাবক হিসেবে আপনাদের ও সন্তানকে সঠিক পথে পরিচালিত করার দায়িত্ব রয়েছে।কাজেই অভিভাবক ও শিক্ষক-শিক্ষীকা সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বর্তমান সরকারের মাদক, জঙ্গীবাদ এবং সন্ত্রাস ও দুর্নীতিমুক্ত একাডেমিক ক্যাম্পাস গঠনে সহায়তা করবে।”

তিনি অভিভাবকদের তাদের সন্তানদের খোঁজখবর রাখার অনুরোধ করেন, শিক্ষকদের দায়িত্বের বিষয়গুলো অবহিত করেন এবং শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন ইতিবাচক কর্মকান্ডের দিকে উৎসাহিত করেন।

অনুষ্ঠান শেষে বিনোদন মূলক খেলা, কুইজ ও পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয় এবং জয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরন করা হয় ।


পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech