সুন্দরবনে গোলপাতা আহরণ!

  

পিএনএস, পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : সুন্দরবনে গোলপাতা আহরণ মৌসুম চলছে। সুন্দরবনের পশ্চিম বনবিভাগের কূপে গোলপাতা কাঁটা চলছে। আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত গোলপাতা আহরণ চলবে। বন বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, প্রতি বছর ডিসেম্বরে গোলপাতা আহরণ মৌসুম শুরু হয়। তবে বন সুরক্ষা জন্য গোলপাতা আহরণ মৌসুমে বাওয়ালীদের বিএলসি (পাশ পারমিট) দেয়ার ক্ষেত্র কঠোর বন বিভাগ। প্রথম দফায় বনবিভাগ খুলনা রেঞ্চের একটি কূপ থেকে ১লাখ মন গোলপাতা পারমিট দিয়েছেন।

গত ৩১ জানুয়ারি থেকে পারমিট দেওয়া শুরু হয়েছে এবং ৩১ মার্চ পর্যন্ত আহরণ চলবে। প্রথম দফায় ১৪৫টি বিএলসির অনুকূলে ৭০ হাজার ১২৮ পণ গোলপাতা সংগ্রহের পারমিট নিয়ে বাওয়ালীরা গোলপাতা কাঁটা শুরু করেছে। উপকূল এলাকার ঘরবাড়ীর ছাউনির কাজ গোলপাতা ব্যবহার বেশ জনপ্রিয়। পাইকগাছায় গোলপাতা ব্যবসায়ী আতিয়ার রহমান ও সামছুর রহমান জানান, এখন আগেরমত গোলপাতার চাহিদা নেই। বিক্রি কমে যাওয়ায় গত বছরের অনেক গোলপাতা আড়ৎ ঘরে রয়ে গেছে। তাছাড়া বাওয়ালীদের ঝুঁকি নিয়ে গোলপাতা কাঁটতে হয়। তারপরেও গোলপাতা আহরণের যে পরিমাণ টাকা লগ্নী করা লাগে, সেই তুলনাই একেবারেই ব্যবসা হচ্ছে না।

খুলনা বিভাগীয় বনকর্মকর্তা ড. আবু নাসের মহাসিন হোসেন জানান, প্রতিটি স্টেশন ও কূপে নিয়মিত তদারকি করে বিএলসি (পাশ পারমিট) নবায়ণের অনুমতি দিয়েছেন। পাশাপাশি কূপে নৌকার সাথে মিল রেখে গোলপাতা কাটার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরিবেশবাদী সংগঠন বনবিবি সভাপতি ও সাংবাদিক প্রকাশ ঘোষ বিধান বলেন, সুন্দরবনের আহরণ যোগ্য সম্পদ গোলপাতা। সঠিক ভাবে পাতা কাঁটলে গোলগাছ ও সুন্দরবন ভালো থাকবে। গোলপাতা অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছে।

পিএনএস/এসআইআর

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন