বাপেক্স ও সান্তোস যৌথভাবে সমুদ্রে খনিজ সম্পদ অনুসন্ধান চালাবে

  

পিএনএস, এবিসিদ্দিক : সমুদ্রে যৌথভাবে খনিজ অনুসন্ধান শুরু করতে যাচ্ছে বাপেক্স ও অষ্ট্রেলিয়ার বহুজাতিক কোম্পানি সান্তোস। ১৬ নম্বর ব্লকের মগনামায় এই অনুসন্ধান করা হবে। গ্যাসের দাম বাড়ানো টাকা দিয়ে বাপেক্স এই অনুসন্ধান করবে। বুধবার সচিবালয়ে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে মগনামায় অনুসন্ধানের জন্য ক্রয় বিক্রয় চুক্তির খসড়া (এসপিএ) সইয়ের নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়।

একনেক অনুমোদন দিলে এই চুক্তি হবে। সভাশেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মাকসুদুর রহমান পাটোয়ারী এ তথ্য জানান। এ সময় যুগ্ম সচিব আবু সালেহ মোস্তফা উপস্থিত ছিলেন। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, পানি সম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে ১৬ নম্বর ব্লকের মগনামা রিং ফেন্সড এলাকায় অনুসন্ধানের জন্য সান্তোস বাংলাদেশ লিমিটেড (এসবিএল) বাপেক্স বরাবর একটি প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাব অনুযায়ী যৌথ বিনিয়োগে সম্মত হলে ৫০ ভাগ শেয়ারের ৪৯ ভাগ হন্তান্তর করতে চায় প্রতিষ্ঠানটি। এর ভিত্তিতে প্রথম দফায় প্রায় ৩০০ কোটি টাকা বাপেক্সকে বিনিয়োগ করতে হবে। পরে আবার আলোচনার করে সান্তোস সংশোধিত নতুন প্রস্তাব দেয়।

এতে ২ হাজার ৩০৮ মিলিয়ন ডলার বা ২৩০ কোটি ৮০ লাখ টাকা বিনিয়োগের প্রস্তাব দেয়া হয়। বাপেক্সের ৩৭২তম বোর্ড সভায় সান্তোসের এ সংশোধিত প্রস্তাব অনুমোদন পায়। জ্বালানি মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, মগনামা অনুসন্ধান কূপ-২ খনন করতে ২৩০ কোটি ৮০ লাখ টাকা বিনিয়োগ করা হবে। গ্যাস উন্নয়ন তহবিল (জিডিএফ) থেকে এ টাকা খরচ করা হবে। সরকার অনুমোদন দিলে আগামী ৩১শে জানুয়ারির মধ্যে বিনিয়োগকৃত অর্থ সান্তোসকে দেয়া হবে। চুক্তি অনুযায়ি, অনুসন্ধানকারী প্রতিষ্ঠান উত্তোলিত তেল-গ্যাস প্রথমে পেট্রোবাংলার কাছে বিক্রির জন্য প্রস্তাব দেবে, পেট্রোবাংলা নিতে না চাইলে দেশের মধ্যেই তৃতীয় পক্ষের কাছে তা বিক্রি করতে পারবে। বর্তমানে অগভীর সমুদ্রের ১১ নম্বর ব্লকে গ্যাস উত্তোলনের কাজ করছে সান্তোস।

পিএনএস/মো: শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech