আগামী ৩ মাসের মধ্যে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিবন্ধন

  

পিএনএস : রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিবন্ধন আগামী তিন মাসের মধ্যে সম্পন্ন হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাসুদ রেজোয়ান। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে উখিয়ার কুতুপালং ও টেকনাফের নয়াপাড়ায় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিবন্ধন কার্যক্রম পরিদর্শনকালে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

এসময় মেজর জেনারেল মাসুদ বলেন, রোহিঙ্গাদের নিবন্ধনের জন্য উখিয়ার কুতুপালং এলাকার কেন্দ্রে এবং টেকনাফের নয়াপাড়া কেন্দ্রে নতুন করে ৩০টি কম্পিউটার (ল্যাপটপ) দেওয়া হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে উখিয়ার বালুখালী শরণার্থী ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকায় আরেকটি নিবন্ধন কেন্দ্র চালু করা হবে। নিবন্ধন কার্যক্রম জোরদার করতে এসব কেন্দ্রে জনবল বাড়ানো হয়েছে।

তবে রোহিঙ্গাদের ভাষাগত সমস্যার কারণে নিবন্ধন কার্যক্রমে কিছুটা ব্যাঘাত সৃষ্টি হচ্ছে বলে জানান তিনি।ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের ডিজি বলেন, তারপরও সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী তিন মাসের মধ্যে রোহিঙ্গাদের নিবন্ধন কার্যক্রম শেষ করা যাবে।

রোহিঙ্গাদের নিবন্ধন কার্যক্রম পরিচালনায় সমন্বয়কের দায়িত্বপালনকারী ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের সিনিয়র সিস্টেম এনালিস্ট (পরিচালক) আবু নেছার মো. বদরুদ্দোজা বলেন, গত ১১ সেপ্টেম্বর থেকে নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। উখিয়ার কুতুপালং ও টেকনাফের নয়াপাড়ায় স্থাপিত দুটি কেন্দ্রে চলছে নিবন্ধন কার্যক্রম।

তিনি বলেন, এর আগে কুতুপালং কেন্দ্রে ছয়টি এবং নয়াপাড়া কেন্দ্রে চারটি কম্পিউটার দিয়ে নিবন্ধন কার্যক্রম চালানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে কুতুপালং কেন্দ্রে নতুন করে ১৮টি এবং নয়াপাড়া কেন্দ্রে ১২টি কম্পিউটার সংযোজন করা হয়েছে। পাশাপাশি বাড়ানো হয়েছে জনবলও।

বুধবার পর্যন্ত কুতুপালং ও নয়াপাড়া নিবন্ধন কেন্দ্রে ৮ হাজার ১০০ জনের বেশি রোহিঙ্গা নিবন্ধিত হয়েছে বলে জানান শরণার্থী নিবন্ধন কার্যক্রমের দায়িত্বপালনকারী কর্মকর্তা বদরুদ্দোজা।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech