সব গার্মেন্টস শ্রমিকদের টিকার আওতায় আনা হবে : সিভিল সার্জন

  18-07-2021 04:01PM

পিএনএস ডেস্ক : সরকারিভাবে গার্মেন্টসকর্মীদের করোনাভাইরাস প্রতিরোধক টিকা দেওয়া হচ্ছে। আজ রোববার সকাল ১০টার দিকে গাজীপুর মহানগরের কোনাবড়িতে তুসোকা গার্মেন্টসে কর্মীদের টিকা প্রয়োগ শুরু হয়। এ সময় পর্যায়ক্রমে সব পোশাকশ্রমিক-কর্মকর্তাদের টিকার আওতায় আনা হবে বলে জানান গাজীপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো. খায়রুজ্জামান। টিকা প্রদান অনুষ্ঠান উদ্বোধনের সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র অ্যাডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর আলম।

সিভিল সার্জন বলেন, করোনা প্রতিরোধ করার জন্য গাজীপুরে ফেব্রুয়ারি থেকে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে এবং সেটা অব্যাহত আছে। সারাদেশের গার্মেন্টস ও শিল্প-কলকারখানার শ্রমিকদের টিকাদান কর্মসূচির আওতায় আনার চেষ্টা করছি। আমাদের টিকাদান কর্মসূচি মূলত হাসপাতালকেন্দ্রিক। কিন্তু আমরা পোশাকশ্রমিকদের জন্য গার্মেন্টসে গার্মেন্টসে গিয়ে টিকা দিচ্ছি। এ কাজটি করতে আমরা দীর্ঘদিন ধরে প্রশিক্ষণ নিয়েছি। আমাদের টিমকে প্রশিক্ষিত করেছি, ভ্যাক্সিনেটরদের প্রশিক্ষিত করেছি। আমাদের সমস্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি।

ডা. মো. খায়রুজ্জামান বলেন, আমরা গার্মেন্টস কর্মী সব ভাই-বোনকে টিকার আওতায় আনব। এরই অংশ হিসেবে আজ চারটি গার্মেন্টসে টিকাদান কর্মসূচি শুরু পর্যাক্রমে সমস্ত গার্মেন্টসকে টিকাদানের আওতায় আনা হবে। দেশে প্রচুর টিকা আছে।

সিটি মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী পদক্ষেপের কারণে বাংলাদেশের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি কারখানা শ্রমিকদের এই টিকাদান কর্মসূচি শুরু করা হলো। প্রথম পর্যায়ে ৪টি কারখানার ১২ হাজার শ্রমিক কর্মচারি টিকা পাবে। পর্যায়ক্রমে দেশের প্রতিটি কারখানায় শ্রমিকদের এভাবে টিকা দেওয়া হবে। এ ব্যপারে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।‘ তিনি শ্রমিকদের টিকাদান কর্মসূচি গাজীপুর সিটিতে উদ্বোধন করে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলাম জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের প্রতিটি মানুষ টিকা পাবে। টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে বয়সের সীমা তুলে দেওয়ায় ভালো হয়েছে। শ্রমিকরা আজ থেকে শুধুমাত্র এনআইডি কার্ডের ফটোকপি দেখিয়েই টিকা নিতে পারবে। আজ গাজীপুরে চারটি কারখানায় টিকা দেওয়া চলছে বলে জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আমিনুর ইসলাম, গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার অপরাধ (উত্তর) মো. জাকির হাসান, মার্কস অ্যান্ড স্পেন্সারের হেড অব কান্ট্রি স্বপ্ন ভোমিক ও কেয়ার বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর রমেশ সিংসহ অন্যান্যরা।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন