গাইবান্ধায় কিশোরীর গলা কাটা লাশ : মা আটক

  

পিএনএস ডেস্ক : গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার ভরতখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ উল্লাহ গ্রামে আতিকা আকতার (১৬) নামের এক কিশোরীর গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞসাবাদের জন্য নিহতের মা হামিদা বেগমকে আটক করা হয়েছে। আজ শুক্রবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আতিকা আকতার ভরতখালী ইউনিযনের দক্ষিণ উল্লাহ গ্রামের আমিনুল ইসলামের মেয়ে। সে নবম শ্রেণীর ছাত্রী। পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্র জানায়, আতিকা আকতারের সঙ্গে একই এলাকার রাসেল নামে এক ছেলের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এ নিয়ে শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে আতিকা আকতারের সঙ্গে তার মা হামিদা বেগম ও বাবা আমিনুল ইসলাম এবং পরিবারের সদস্যদের বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে তাকে মারধর ও ধারাল অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে হত্যা করা হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ গলা কাটা অবস্থায় কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে একটি চাকু উদ্ধার করা হয়েছে। লাশের ময়না তদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়ের হয়নি।

এ বিষয়ে সাঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বেলাল হোসেন জানান, প্রেমঘটিত কারণে এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের মা হামিদা বেগমকে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন