রূপচর্চার জরুরি কিছু

  

পিএনএস ডেস্ক: আমাদের প্রতিদিনের যত্নে রূপচর্চা একটি জরুরি বিষয়। আর কিছু বিষয় আছে যেগুলো ছাড়া রূপচর্চা অসম্পূর্ণ। নানা উপায়ে আমরা রূপচর্চা করে থাকি। তার মধ্যে স্ক্রাবিং, ক্লিনজিং, ময়েশ্চারাইজিং, টোনিং উল্লেখযোগ্য। চলুন জেনে নেই ত্বকের যত্নে এই উপায়গুলো কিভাবে মেনে চলবো।

স্ক্রাবিং: নরমাল স্কিন হলে কমলালেবুর খোসা ও চালের গুঁড়ার পেস্ট অথবা বার্লি ও ঠান্ডা দুধের মিশ্রণ ব্যবহার স্ক্রাবার হিসেবে করতে পারেন। ড্রাই স্কিনের ক্ষেত্রে চালের গুঁড়া ও দুধের সরের সঙ্গে একটু মধু মিশিয়ে নিন। অয়েলি স্কিনে মসুর ডালবাটা ও কমলালেবুর খোসা দিয়ে স্ক্রাব করা যায়। কম্বিনেশন স্কিনের ক্ষেত্রে কর্নফ্লাওয়ার ও এক চিমটে কর্পূর কুসুম গরম পানিতে মিশ্রণ করে স্ক্রাবিং করুন। মনে রাখতে হবে, স্ক্রাবিংয়ের সময় হালকা প্রেসার দিয়ে সার্কুলার মুভমেন্টে ম্যাসাজ করতে হবে।

ক্লিনজিং: নরমাল স্কিন হলে কটন বল ঠান্ডা দুধে চুবিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। তারপর আর একবার পানি দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। ড্রাই স্কিন হলে শসার রস ও ঠান্ডা দুধের মিশ্রণ কটন বলে ডুবিয়ে পরিষ্কার করে নিন। অয়েলি স্কিনে বেশি ময়লা জমে বলে ঠান্ডা দুধের সঙ্গে পুদিনাপাতার রস মিশিয়ে নিন। এরপর কটন বল দিয়ে, সেই মিশ্রণে ডুবিয়ে ভালো করে ক্লেনজিং করুন। কম্বিনেশন স্কিনের ক্ষেত্রে ঠান্ডা দুধে কটন বল ভিজিয়ে পরিষ্কার করলেই উপকার পাবেন।

ময়েশ্চারাইজিং: নরমাল ও কম্বিনেশন স্কিনে অ্যালোভেরা জেল ও সামান্য মধু মিশিয়ে লাগানো যেতে পারে। অয়েলি স্কিনে আপেল কুচিয়ে তার সঙ্গে মধু মিশিয়ে লাগিয়ে পরে ধুয়ে নিন। ড্রাই স্কিনে মধুর সঙ্গে নারকেল তেল মিশিয়ে লাগালে বেশ উপকার পাবেন।

টোনিং: নরমাল ও ড্রাই স্কিনের জন্য শুধু গোলাপজল দিয়ে টোনিং করলেই হবে। অয়েলি স্কিনে পুদিনা পাতা, শসা ও লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে মাখতে পারেন। কম্বিনেশন স্কিনের জন্য টমেটো রস, শসার পেস্ট ও গোলাপজলের মিশ্রণ ভালো টোনার হিসেবে কাজ করে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech