গণভবনে ছাত্রলীগ নেতাদের দেখে ‘কথা বলার মুড’ ছিল না নুরের!

  

পিএনএস ডেস্ক: ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, গণভবনে ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের দেখে তার ‘কনসেনট্রেশন’ ঠিক ছিল না। রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। এসময় তিনি ডাকসুর পুনর্নির্বাচনের দাবি জানান।

স্বাধিকার স্বতন্ত্র পরিষদ, স্বতন্ত্র জোট ও বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন ডাকসুর পুনর্নির্বাচনের দাবির সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের এ সংবাদ সম্মেলনে যোগ দেয়।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের করা এক প্রশ্নের জবাবে নুরুল হক নুর বলেন, ‘আমরা প্রথম শুনেছিলাম যে গণভবনে শুধু ডাকসু এবং হল সংসদের নিবার্চিত প্রতিনিধিরা যাবেন। কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখি ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা উপস্থিত। তাদের দেখে আমি নিজের অস্বস্তি বোধ হয়েছে। আপনারা জানেন যে স্বাভাবিকভাবে মানুষের একবার ‘কনসেনট্রেশন’ নষ্ট হয়ে যায় তাহলে মানুষের আর কথা বলার মুড থাকে না। তাই আমি সেখানে (গণভবনে) অনেক কথা বলতে পারিনি’।

তিনি বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি শ্রদ্ধাবোধ রেখে আমরা সেখানে গিয়েছি। কারণ তিনি রাষ্ট্রের সবোর্চ্চ নির্বাহী ব্যক্তি। আর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম স্বাধীনভাবে পরিচালনা করার সে এখতিহার রয়েছে। তাই আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের কাছে পুনর্নির্বাচন নেওয়ার জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি’।

তিনি আরো বলেন, ‘ডাকসু নির্বাচনটা হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিষয়, এটা সরকারের কোনও বিষয় না। প্রধানমন্ত্রী কারচুপি ও অনিয়মের নির্বাচনে যারা জয়ী হয়েছেন তাদের গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। আমাদের শ্রদ্ধাবোধ থেকে আমরা সেখানে গিয়েছি। সেখানে ডাকসুর বাইরেও আবাসন সংকট এবং শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে কথা বলেছি। কিন্তু নির্বাচনের বিষয়ে সরকারের কিছুই করার নেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় একটি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। আমি শুধু প্রধানমন্ত্রীর নজরে এনেছি যে এই নির্বাচনে অনিয়ম হয়েছে। শিক্ষার্থীরা সেটির সমাধান চাচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জায়গা থেকে তিনি যেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনকে বিষয়টি অবহিত করেন।’

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech