ধন্যি মেয়ে, বিয়ের জন্য বেচতে গেল কিডনি

  

পিএনএস ডেস্ক : মনের মানুষকে কাছে পেতে কত কাণ্ডই না ঘটে যায়৷ কিন্তু বিহারের এই যুবতী যা করলেন তা শুনে তাজ্জব বনে গিয়েছেন অনেকে৷ প্রেমিককে বিয়ে করবেন বলে কিডনি বেচতে গিয়েছিলেন ওই যুবতী৷ কিডনি বিক্রির টাকা দিয়ে প্রেমিকের সঙ্গে ঘর বাধার স্বপ্ন দেখেছিলেন তিনি৷

২১ বছরের ওই যুবতী বিবাহিতা৷ সেই বিয়ে বেশিদিন টেঁকেনি৷ বিবাহ বিচ্ছেদের পর ফের ঠাঁই হয় বাপের বাড়িতে৷ সেখানে এসে প্রতিবেশী এক যুবকের সঙ্গে আলাপ হয় তার৷ ধীরে ধীরে গড়ে ওঠে ঘনিষ্ঠতা৷

এদিকে কাজের সূত্রে প্রেমিককে পাড়ি দিতে হয় উত্তর প্রদেশের মোরাদাবাদে৷ ফোনেই চলত প্রেমপর্ব৷ বিয়ের কথা উঠতেই ওই যুবক জানায় ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা পেলেই তবেই সে বিয়ে করবে৷ অত টাকা কোথা থেকে জোগাড় হবে সেই চিন্তাতেই যুবতীর মাথায় এল কিডনি বেচার ফন্দি৷ কাউকে না জানিয়ে সোজা বেরিয়ে এলেন বাড়ি থেকে৷ কিডনি বেচতে পাড়ি দিলেন দিল্লি৷ সটান চলে যান এক সরকারি হাসপাতালে৷ ডাক্তারদের গিয়ে সব বলতেই তারাই কিডনি পাচার চক্র সন্দেহে পুলিশ ও মহিলা কমিশনে ফোন করেন৷

তারপরেই সব রহস্যের অবসান৷ উঠে এসেছে অদ্ভুত এক প্রেমের কথা৷ যেখানে যুবতি পণের টাকা জোগাড় করতে নিজের কিডনি বিক্রির দুঃস্বপ্ন দেখেছেন৷ সব শুনে হতবাক চিকিৎসক ও মহিলা কমিশনের কর্মীরা৷ ওই যুবতীর মুখে সব শুনে বিহারে তার পরিবারকে খবর দেওয়া হয়৷ বিষয়টি এখন বিহার মহিলা কমিশনের কাছে পাঠানো হয়েছে৷ সেই সঙ্গে ওই যুবকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে৷

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech