বগুড়ায় সিএনজি চালককে হত্যা, ৬ জনের যাবজ্জীবন

  

পিএনএস, বগুড়া : বগুড়ায় চালককে হত্যা করে সিএনজি ছিনতাই মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও প্রত্যেকের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো দুই বছরের সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার বগুড়ার দায়রা জজ আ ম মো: সাঈদ জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষনা করেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামীরা হলো- সিরাজগঞ্জ জেলা সদরের ধোপাপাড়া চন্ডিদাসগাথি গ্রামের আমির হোসেন এর পুত্র ইউসুফ আলী, একই গ্রামের জালাল তালুকদারের পুত্র সেলিম, সরাই চন্ডিপুর গ্রামের ইউনুস আলীর পুত্র শফিকুল ইসলাম ও জহের উদ্দীন এর পুত্র কামরুল ইসলাম, সরাই চন্ডি খনকারপাড়ার আজাহার আলী @ ধুল্লার পুত্র মাসুম, একই গ্রামের মৃত মতিয়ার রহমানের পুত্র ই্উসুফ।

মামলার প্রসিকিউশন সূত্রে জানা যায়, ২০১৩ সালের ২৮ জুলাই দিবাগত রাত সাড়ে ৮টায় সাজাপ্রাপ্ত আসামীরা বগুড়া শহরের চারমাথা এলাকায় এসে বগুড়া সদরের বড়কুমিড়া গ্রামের আব্দুল হামিদের পুত্র মিনহাজুল আবেদীন (ফাইট) এর সিএনজি ১০০ টাকায় ভাড়া নেয়। এরপর আসামীরা সিএনজি নিয়ে হাইওয়ের উপর দিয়ে সিরাজগঞ্জের দিকে রওনা হয়। পথেরমধ্যে শাজাহানপুর উপজেলার সাজাপুর এলাকায় আসামীরা সুপরিকল্পিতভাবে ভিকটিমের হাত-পা বেঁধে গামছা দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যা করে এবং লাশ হাইওয়ের পাশে জঙ্গলে ফেলে দিয়ে সিএনজি চালিত অটোরিকশাটি নিয়ে পালিয়ে যায়।

পরদিন সকালে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল গফুর পুলিশকে খবর দিয়ে লাশ উদ্ধারের ব্যবস্থা করে নিজে বাদী হয়ে শাজাহানপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই কোরবান আলী মোবাইলের সুত্র ধরে আসামী ইউসুফ ও কামরুলকে গ্রেফতার করলে তারা বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারার জবানবন্দিতে হত্যার ঘটনা স্বীকার করে। সরকারপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন পিপি আব্দুল মতিন।

পিএনএস/মো: শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech