রহস্যময় প্রাণী আবিষ্কারে বিজ্ঞানীরাও হতচকিত!

  

পিএনএস ডেস্ক: ডায়নোসরের মত একটি প্রাণীর আবিষ্কার রীতিমত চিন্তায় ফেলে দিয়েছে বিজ্ঞানীদেরকে। এত অবাক হবার কারণ হচ্ছে, এই প্রাণীটির কঙ্কালের সাথে এখনো আটকে আছে পেশী! এটা কোনোমতেই ডায়নোসর হতে পারে না, কারণ তারা নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে ৬৫ মিলিয়ন বছর আগেই।

ভারতীয় এক ইলেকট্রিশিয়ান একটি সাব-স্টেশন পরিষ্কার করার সময়ে আংশিক-সংরক্ষিত এই কঙ্কাল খুঁজে পায়। উত্তরখন্দ, জাসপুরে পাওয়া যায় একে। এই কঙ্কালের কার্বন ডেটিং সহ অন্যান্য পরীক্ষা করতে পাঠানো হয়েছে ইতোমধ্যে। ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিসের কনজারভেটর ডঃ পরাগ মাধুকর ধাকাতে জানান, একে দেখতে ডায়নোসরের মত বটে, কিন্তু এসব পরীক্ষার ফলাফল না আসা পর্যন্ত এই প্রাণীটির রহস্য কাটবে না।

দিল্লী ইউনিভার্সিটির পিএইচডি ফেলো আরিয়ান কুমার স্থানীয় সংবাদ সংস্থাকে জানান, এত বছর পরেও একটি ডায়নোসরের কঙ্কাল এত ভালোভাবে সংরক্ষিত থাকা অসম্ভব। থেরোপড নামের এক ডায়নোসরের মত দেখতে এই কঙ্কাল। কিন্তু ফসিলে রূপান্তরিত না হয়ে একটি ডায়নোসরের কঙ্কাল এভাবে সংরক্ষিত থাকার কথা নয়। তিনি বলেন, ‘হয়তো এটাকে রাসায়নিকভাবে সংরক্ষণ করা হয়েছিল কোন মিউজিয়ামের জন্য। কিন্তু তাই যদি হয়, এটা এখানে পাওয়া গেল কেন?’

কঙ্কালটিকে কুমায়ুন ইউনিভার্সিটিতে পাঠানো হয় হিস্টোরিকাল অ্যানালাইসিসের জন্য। প্রাথমিক কিছু পরীক্ষার পর এখন ধারণা করা হচ্ছে হয়তো ছাগল ধরণের কোন প্রাণীর বিকৃত ভ্রূণের অবশিষ্টাংশ হতে পারে তা, কিন্তু এ ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত করে কিছু বলা যায় না।

কিছুদিন আগেই অদ্ভুত আরো একটি আবিষ্কার হয়েছিল। এক টুকরো অ্যাম্বারের ভেতরে থাকা প্রস্তরীভূত উকুন পাওয়া যায় যে কিনা ডায়নোসরের রক্ত খেয়ে ফুলে ছিল বলে মনে করে হচ্ছে। তবে এই রক্ত অনেক মিলিয়ন বছরের পুরনো বলে তা থেকে ডায়নোসরের ডিএনএ উদ্ধার করা যায়নি। আরেকটি বার্মিজ অ্যাম্বারের ভেতরে এমন একটি উকুন পাওয়া যায় যে কিনা একটি ডায়নোসরের পালক আঁকড়ে ধরে ছিল, ৯৯ মিলিয়ন বছরের পুরনো। বর্তমান সময়ের উকুনের সাথে বেশ মিল পাওয়া যায় এদের।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech