‘কুয়েতের আমিরের টাকা কি ট্রাস্টে এসেছিল’ - আইন-আদালত - Premier News Syndicate Limited (PNS)

‘কুয়েতের আমিরের টাকা কি ট্রাস্টে এসেছিল’

  

পিএনএস ডেস্ক : জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আজ আদালত বিএনপি চেয়ারপারসনের আইনজীবীর কাছে জানতে চান, কুয়েতের আমিরের দেওয়া টাকা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টে এসেছিল কি না? কোন অ্যাকাউন্টে জমা হয়েছিল?

আজ বৃহস্পতিবার এই মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের সপ্তম দিন ছিল। বকশীবাজারের বিশেষ জজ আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে তাঁর অন্যতম আইনজীবী সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন।

আজ খালেদা জিয়ার আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলীর কাছে ঢাকার বিশেষ জজ পাঁচ আদালতের বিচারক আখতারুজ্জামান জানতে চান, কুয়েতের আমির কত টাকা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টে দান করেছিলেন?

এ সময় এ জে মোহাম্মদ আলী আদালতকে বলেন, এই তহবিল পাবলিক তহবিল কিনা সেটা আগে নির্ণয় করতে হবে। এই টাকার উৎস নির্ণয় করা জরুরি। এর আগে তিনি সাবেক রাষ্ট্রদূত আবদুস সাত্তারের জবানবন্দি ও জেরার অংশ পড়ে শোনান। আদালতকে তিনি জানান, বাংলাদেশে কুয়েত দূতাবাস থেকে যে পত্র দেওয়া হয়েছিল সেখানে বলা আছে কুয়েতের আমির জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টকেই টাকা দেন।

এরপরই আদালত তাঁর কাছে কত টাকা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টে দেওয়া হয়েছিল তা জানতে চান। জবাবে তিনি বলেন, এই পত্রে টাকার পরিমাণ উল্লেখ করা হয়নি। তখন আদালত তাঁর কাছে আবার প্রশ্ন করেন, টাকার অঙ্ক যেহেতু উল্লেখ নেই তাহলে আপনারা কী জানতে চেয়েছিলেন। ওই পত্র কার স্বাক্ষরিত এটাও আদালত তাঁর কাছে জানতে চান।

আগামী ১০ ও ১১ জানুয়ারি পর্যন্ত শুনানি মুলতবি রেখেছেন আদালত। এর আগে বেলা ১১টা ৩৫ মিনিটের দিকে আদালতে হাজির হন খালেদা জিয়া। শুনানি চলে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়া, তাঁর বড় ছেলে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ছয়জন আসামি। তারেক রহমান পলাতক থাকায় তাঁর বিরুদ্ধে আদালতের জারি করা গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে। এ ছাড়া ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে করা জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায়ও খালেদা জিয়াসহ চারজন আসামি।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech