প্রসঙ্গঃবিয়া ও কালচারাল কুফু

  

পিএনএস (আতিক মরিসকো) : মুল লেখায় যাওয়ার আগে একটা কনসার্নিং ইনফরমেশন দিয়ে শুরু করি। বেশ সপ্তাহ খানিক আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের আমার ফ্যাকাল্টির এক‌টি ডিন অফিসের ভিতরে এক‌টি নোটিশ দেখে চোখ পুরো উল্টে যায়।

মালেয়শিয়াতে তালাক বা ডিভোর্স এর হার মহামারি আকার ধারণা করেছে। তাই গভার্নমেণ্ট বাধ্যতামূলক প্রিম্যারেজ কোর্স করেছে ।

শুনেছি ঢাকায় নাকি প্রতি ঘন্টায় ১টা ডিভোর্স!!!

যাইহোক, আমার ধারণা এসব এর পিছনে অন্যসব কারণের পাশাপাশি কালচারাল কুফু বা মানুসিক সাম্যতা একটা ফ্যাক্টর।

এবার চলেন মুল কথায় বিয়ে একটি আজব এবং মজার শব্দ। এতে আছে ভয়, আছে আনন্দ, ভালোবাসা, বারাকাহ, দায়িত্ববোধ আরও কত কি!

যাইহোক আজকের আলোচনার বিষয় অন্য বিয়ের ফজিলত নয় । কালচারাল কুফু । আমি বলি মানুসিক মিলন বা সমতা ।

সচেতন মুসলিমদের এই কালচারাল কুফু নিয়ে সবচেয়ে বেশি ভয়। বলা যায় এক ধরনের চাপা আতঙ্ক কাজ করে। মিলবে তো আমাদের ফ্যামিলির সাথে? আমাদের মানুসিকতার সঙ্গে? না মিললে পাছে যদি ......!

এই কথা গুলো না পারে প্রকাশ করতে আবার না পারে চেপে রাখতে। এই ভয়ে কেউ যদি আবার বলে বসে ভাই আপনি নাকি ইসলামিক এসব কি বলেন আঞ্চলিকতা, উচুঁ - নিচু, ধনী- গরীব... ইসলাম ত উম্মায় বিশ্বসী।

হ্যাঁ ভাই, হ্যাঁ বোন এটা আসলে ম্যাটার অব ফ্যাক্ট। কালচারাল কুফু দেখা ভালো।

কেননা দুইটি ফিজিক্যাল বডি এক সাথে থাকার নাম বিয়ে নয়। বিয়ে মানুসিক মিলও বটে। তা নাহলে সংসার জীবনে জাহান্নাম নেমে আসবে। একজন বলবে ডান অপর জন বাম।

এবার একটু কালচারাল কুফু কেন ফ্যাক্টর তা একটু পর্যালোচনা করা যাক।

বাংলা মুলুকে মোটা দাগে ৭ ধরনের ফ্যামিলি কালচার পাওয়া যায়।

এক। এলেট ফ্যামিলি কালচার। আমরা সবাই জানি এই ফ্যামিলির লোকজন কিভা‌বে বেড়ে উঠে। এদের চাল চলন, খাবার - পোশাক আশাক, চিন্তা চেতনা । এরা মুখে স্বীকার না করলেও বাস্তবে আত্ম অহমিকা করে।

যতই ইসলামিক হোক মেন্টালি একটু (...) থাকে ।

সোজা বাংলায় সুপারিয়রিটি কম্পলেক্স ভোগে। টাকার একটা গরম ত থাকে ই। অনেক সময় এরা ভালো ছেলে বা মেয়ে জামাই বা বউ বানানোর নামে তুলনা মুলক কম বিত্তশালী ছেলে / মেয়ে কে নিজের সম্পদ বানানোর চিন্তা করে। এর মানে কি আপনারা ভালো ই জানেন। তবে হ্যাঁ এক্সসেপশনালও আছে।

দুই। মধ্যবিত্ত শ্রেণী । বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ফ্যামিলি কালচারের নাম। যদিও এর মধ্যেও কিছু শ্রেণী আছে উচ্চ মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত। এই গোষ্ঠীর জীবনবোধ ও চিন্তাভাবনা বেশ জটিল । একদিক দিয়ে এরা আত্ম দ্বন্দ্বে ভোগে আবার অন্যদিকে সব জায়গায় ফিট হওয়ার মেন্টালিটি থাকে। এদের মেনে নেয়ার যোগ্যতা বেশি। আপনি যদি এই ক্যাটাগরিতে পড়েন। তাহলে সে অনুযায়ী ....... নিবেন।

তিন। হঠাৎ "বড়লোক" ক্যাটাগরি ফ্যামিলি কালচার। এক কথায় বলি এদের কোন নিজস্ব স্বকীয় কালচার নাই। হঠাত বড় লোক হওয়ার কারণে না পারে আগের অভ্যাসে ফিরে যেতে আবার
এরা অন্যদের অনুসরণ করতে গিয়ে উল্টো-পাল্টা আচরণ করে। এরা কি এরা নিজেই জানে না। এরা মনে করে টাকা দিয়ে সব পাওয়া যায়। এই গ্রুপকে খুব সাবধানে ডিল করা উচিৎ।

চার। নিন্ম শ্রেণী বা গ্রামের গরীব ফ্যামিলি কালচার। এদের সম্পর্কে সবাই জানি এরা মেন্টালি "ইনফিরিয়র কম্পেলেক্স" এ ভোগে। সব কিছু মেনে নেয়ার মেন্টালিটি আছে। বাট প্রব্লেম হল এরা অনেক সময় এডাপ্ট করতে সমস্যায় পড়ে।

পাচ। আঞ্চলিক কালচার। এটাও খুবি গুরুত্বপুর্ণ। আমাদের দেশে মজা করে অনেকেই বলে অমুক অমুক এলাকায় ভুলেও বিয়ে করিস না। এর মানে হল এটা একটা ফ্যাক্ট যে বিভিন্ন এলাকার বিভিন্ন ট্রাডিশন আছে। তাই অনেক সময় মানুসিক মিল হয় না। একটা প্রবাদ বাজারে প্রচলিত এক দেশের গালি আর অন্য দেশের বুলি। সুতরাং ইটস এ ফ্যাক্ট ইন সাম কেসেস।

ছয়। ইসলামিক এণ্ড নন ইসলামিক ফ্যামিলি কালচার। যারা হার্ডকোর ইসলামিক ফ্যামিলি তাদের আচার আচরণ, জীবনযাপন, ওয়াল্ড ভিউ অন্য রকম। আখেরাত মুখী। অপর দিকে যারা নন প্রাক্টিসিং তাদের প্রায়ওরিটি দুনিয়া। সব কিছু দুনিয়ায় পেতে চায়। সুতরাং দুই মুখী মানুষের মানুসিক মিল অসম্ভব।

তবে হ্যাঁ। যদি কেউ বুঝতে পারে, নিজেকে পরিবর্তন করতে ইচ্ছুক হয়। সেটা ভিন্ন বিষয়।

সাতঃ শহুরে কালচার। মানুষ সবাই সমান আপনি যতই বলেন না কেন শহুরে মানুষ আর গ্রামের মানুষের মাঝে একটা হিউজ কালচারাল পার্থক্য আছে। চিন্তা ভাবনায়, আচার -আচরণে । সুতরাং এটাও মাথায় রাখার মত।


বিদ্রঃ এটা কোন রুল থাম্প নয়। নিতান্তই আমার রান্ডম চিন্তা। আপনি এর সাথে দ্বিমত করার অধিকার রাখেন।

জি হ্যাঁ,
বিয়ে অবশ্যই রাসুলের থিওরিতে করবেন। উনার প্রেসক্রিপ্সন বেস্ট। তবে উপরের কালচারাল কুফুটা একটা ফ্যাক্ট। তবে দ্যা ফ্যাক্ট নয়।

শেষে বলতে চাই "মন" মিলন বা কালচারাল কুফুর দিকে খেয়াল রাখা উচিৎ। আল্লাহু মুস্তায়ান।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech