যশোরে তিনটি গোলাগুলির ঘটনায় একজন নিহত, আহত ২

  

পিএনএস, যশোর প্রতিনিধি : যশোরে মধ্যরাতে দুই জায়গায় গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে একজন নিহত ও একজন আহত হয়েছে। নিহত সাব্বির বাঘারপাড়ার খলিলপুর গ্রামের সাইদুল ইসলামের ছেলে। পুলিশের দাবি রোববার অভিযান চালিয়ে তার বাড়ি থেকে অস্ত্র, মাদক উদ্ধার হয় এবং ঘটনাস্থল থেকে হাতকড়া পরে সে পালিয়ে যায়।

বাঘারপাড়া থানার এএসআই নিয়ামুল জানান, তিনি ফোর্সসহ হাইওয়ে ডিউটিতে ছিলেন। এ সময় যশোর-নড়াইল সড়কের আয়াপুরে জনৈক নজরুল ইসলামের বাড়ির কাছে দুই দল মাদক বিক্রেতার মধ্যে গোলাগুলি হচ্ছিল বলে জানতে পারেন। পুলিশ সেখানে উপস্থিত হলে মাদক বিক্রেতারা পালিয়ে যায়। পরে সেখানে এক যুবককে পড়ে থাকতে দেখা যায়।

একই সময় ঘটনাস্থল থেকে বাঘারপাড়া থানার ইনসপেক্টর (তদন্ত) শেখ ওহিদুজ্জামান বলেন, ‘দুই দল মাদক বিক্রেতার গুলিবিনিময়ের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক বিক্রেতারা পালিয়ে যায়। এখানে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক যুবককে পড়ে থাকতে দেখা যায়। তার ঘাড়ের বাম পাশে মাথার নিচে এক রাউন্ড গুলি বিদ্ধ হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ১০৭ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার হয়েছে বলেও দাবি করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

অপরদিকে যশোর-মাগুরা মহাসড়কের খাজুরার কাছে রোববার দিনগত রাত একটার দিকে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে বলে ডিবি পুলিশের দাবি।

ডিবির ওসি ইমাউল হক বলছেন, তাদের কাছে খবর আসে খাজুরার কাছে একদল ডাকাত রাস্তায় গাছ ফেলে ব্যারিকেড দিয়ে ডাকাতি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এ খবরে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছুলে ডাকাতরা গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাঁচ রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে পাল্টা জবাব দেয়। এ সময় ডাকাতরা ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে গেলেও একজন ধরা পড়ে। তার নাম তরিকুল। বাড়ি বরিশাল।

ঘটনাস্থল থেকে ডাকাতির সরঞ্জাম চাপাতি, রশি, করাত, ছোরা উদ্ধার হয় দাবি করে ওসি বলেন, ধরা পড়া ডাকাত আহত হয়েছে। তবে তার গায়ে গুলি লাগেনি।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech