এক দিনে তিন স্কুলছাত্রীর বিয়ে বন্ধ

  


পিএনএস ডেস্ক: পাবনায় এক দিনে তিন স্কুলছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করেছেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জয়নাল আবেদীন। শুক্রবার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত সদর উপজেলার হিমাইতপুর, মালঞ্চি ও মালিগাছা ইউনিয়নের ভিন্ন ভিন্ন গ্রামে গিয়ে তিন স্কুলছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করেন তিনি। এ সময় সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অপরাধে সাতজনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয়া হয়েছে।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- মালঞ্চির ইউনিয়নের মো, আফজাল শেখ , মালিগাছার মো. মুক্তার খাঁ, মো. ইজাজুল খাঁ, হিমাইতপুরের মো. চাঁদ আলী প্রমানিক, মো. আমিরুল ইসলাম, মো. মুক্তার হোসেন এবং ঈশ্বরদীর ছলিমপুর ইউনিয়নের মো. আলামিন হোসেন। এদের মধ্যে প্রথম ছয়জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড এবং একজনকে জরিমানা করা হয়েছে।

পাবনা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন জানান, শুক্রবার ৩৩৩ হতে এসএমএস পেয়ে তিনি জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় সদর উপজেলার হিমাইতপুর, মালঞ্চি ও মালিগাছা ইউনিয়নে গিয়ে তিন স্কুলছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করেছেন। এদের মধ্য দুইজন ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী এবং অন্যজন নবম শ্রেণির ছাত্রী। বাল্য বিয়ে বন্ধ করার সময় সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অপরাধে দণ্ডবিধির ১৮৬ ধারার সাতজনকে সাজা দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, বাল্য বিয়ের ক্ষেত্রে আমরা জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করছি। প্রত্যন্ত গ্রামে গিয়ে বাল্য বিয়ে বন্ধ করা হচ্ছে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech