ময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্র নদে স্কুলছাত্রী নিখোঁজ, উদ্ধারে ডুবুরি দল

  

পিএনএস ডেস্ক : ময়মনসিংহ নগরীর ব্রহ্মপুত্র নদে গোসল করতে গিয়ে অবৈধ ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তলনের গর্তে পড়ে হাসি (১২) নামে এক স্কুল ছাত্রী নিখোঁজ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে ময়মনসিংহ ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছেন। তবে ১০ ঘণ্টা উদ্ধার অভিযান অতিবাহিত হলেও ওই স্কুলছাত্রীর মরদেহের কোনো খোঁজ মেলেনি।

ব্রহ্মপুত্র নদে অবৈধ ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তলনের কারনে স্কুল ছাত্রী হাসির প্রাণ গেল বলে দাবি পরিবারের স্বজনদের। এর দুইমাস আগেও ব্রহ্মপুত্র নদে আরও তিনজনের মর্মান্তিক প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। অন্যদিকে এই অবৈধ ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তলনের জন্য এমন প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে বলে মন্তব্য করেছেন সচেতন নাগরিক মহল।

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) দুপুর ১২ টার দিকে নগরীর দক্ষিণ কালিবাড়ী এলাকায় গোসল করতে নেমে ব্রহ্মপুত্র নদে নিখোঁজ হয় হাসি। পরে রাত ১০ টা পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান চালিয়ে তার কোনো খোঁজ পায়নি। তাই উদ্ধার কাজ স্থগিত রেখে আজ শুক্রবার সকালে শুরু করবে বলে ফায়ার সার্ভিসের কন্ট্রল রুম থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। হাসি নগরীর কেওয়াটকালী এলাকার মরম আলীর কন্যা। সে কেওয়াটকালী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার সকালে ঈদের ছুটি কাটাতে মায়ের সঙ্গে হাসি তার ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে আসেন। পরে ফুফাতো ভাই শাহীনের সঙ্গে বেলা ১২ টার দিকে গোসল করতে ব্রহ্মপুত্র নদে যায়। এর কিছুক্ষণ পরেই ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তলন করা গর্তে নিখোঁজ হয় স্কুলছাত্রী হাসি। পরে অনেক খোঁজ করেও তাকে পায়নি পরিবার। বিকেলে নগরীর রেলওয়ে ব্রীজের পাশে হাসির মরদেহ একনজর দেখার জন্য হাজার হাজার মানুষের ঢল নেমে যায়। হাসির এই মৃত্যু কোনো ভাবেই মেনে নিতে পারছেন পরিবারসহ এলাকার মানুষ। শোকে বাকরুদ্ধ হয়ে আছে হাসির মা ও বাবা।

এদিকে সচেতন নাগরিকরা বলছে, ব্রহ্মপুত্র নদে অবৈধ বালু ব্যবসায়ীদের জন্য আর কতো মায়ের সন্তানের প্রাণ যাবে। তারপরেও ময়মনসিংহের প্রশাসন নিরব কেন? ড্রেজার দিয়ে অবৈধ ভাবে বালু উত্তলন করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে অসাধু কিছু বালু ব্যবসায়ী। ফলে সরকার হারাচ্ছেন বড় ধরনের রাজস্ব। সেই সাথে বালু ব্যবসাকে কেন্দ্র করে কিছুদিন পর পর হত্যাকাণ্ডের ঘটনাও ঘটছে এই নগরীতে। আবার বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে শহররক্ষা বাঁধ আজ হুমকির মুখে।

স্থানীয়রা জানান, অবৈধ ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তরনের কারণে হুমকীর মুখে বিদ্যুৎ পাওয়ার হাউজ, রেলওয়ে ব্রীজ, পাটগুদাম চীন মৈত্রী সেতু, পুলিশ লাইন্স ঘাটসহ নগরীর বিভিন্ন গুত্বপূর্ণ পয়েন্ট।

খবর পেয়ে কোতুয়ালী মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যান। তবে এলাকার কোন জনপ্রতিধি ঘটনাস্থলে দেখা যায়নি।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech