ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের দায়ে শিক্ষক কারাগারে

  

পিএনএস ডেস্ক : ছাত্রীকে যৌন নিপিড়নের অভিযোগে কারাগারে গেলেন এক শিক্ষক। তিনি ভাউলাগঞ্জ গালস স্কুলের ইংরেজী বিভাগের শিক্ষক।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার ভাউলাগঞ্জ গালস স্কুলের নবম শ্রেণির ওই ছাত্রী রবিবার রাতে তার দাদীর সাথে ঘুমাচ্ছিল। এ সময় শিক্ষক আজিজুল ইসলাম (৪৫) ছাত্রীর ঘরে ঢুকে ধর্ষণের উদ্দেশ্যে পরনের কাপড় ধরে টানাটানি করতে থাকেন। এ সময় ছাত্রীর চিৎকারে বাড়ীর লোকজনসহ আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে দৌঁড়ে পালাতে থাকেন ওই শিক্ষক।

পরে গ্রামের লোকজন পিছু ধাওয়া করে শিক্ষককে আটক করে চিলাহাটি ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে চেয়ারম্যানের নিকট নিয়ে যায়। চেয়ারম্যান পরবর্তিতে ওই শিক্ষককে দেবীগঞ্জ থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করে। ছাত্রী এবং ঐ শিক্ষকের বাড়ি ভাউলাগঞ্জ ইউনিয়নের সরকার পাড়া গ্রামে।

সোমবার এই ব্যাপারে দেবীগঞ্জ থানায় ছাত্রীটির বাবা আনার হোসেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে যৌন নিপিড়নের অভিযোগে শিক্ষকের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।

বিকেলে দেবীগঞ্জ থানা পুলিশ ওই শিক্ষার্থীকে জবানবন্দি প্রদানের জন্য পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করেন। জবানবন্দি শেষে শিক্ষককে জেলা কারাগারে প্রেরণ করেন আদালত।

এদিকে শিক্ষার্থীর পিতা মেয়েকে নিজের জিম্মায় নেয়ার প্রার্থনা করলে শিশু আদালতের বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোঃ মেহেদী হাসান তালুকদার ঐ শিক্ষার্থীকে তারা বাবার কাছে প্রেরণের নির্দেশ দেন।


পিএনএস/জে এ/ মোহন


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech