যশোরে লক্ষ্যমাত্রার দ্বিগুণ জমিতে ভুট্টা চাষ

  

পিএনএস ডেস্ক: যশোরের চৌগাছায় লক্ষ্যমাত্রার প্রায় দ্বিগুণ জমিতে ভুট্টা চাষ করেছেন কৃষকরা। চলতি মৌসুমে ২৫০ হেক্টর জমিতে চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল। তবে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের চাষিরা ৪৭৫ হেক্টর জমিতে চাষ করেছেন ভুট্টা।

চৌগাছার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম জানান, চলতি মৌসুমে উপজেলার ১০ ইউপি ও চৌগাছা পৌরসভার ৪৭৫ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ করেছেন কৃষকরা। ফুলসারা ইউপিতে ভুট্টা চাষ হয়নি। এছাড়া পাশাপোল ইউপির ১০ হেক্টর, সিংহঝুলিতে পাঁচ হেক্টর, ধুলিয়ানিতে ১০ হেক্টর, চৌগাছা সদরে ১০ হেক্টর, জগদিশপুরে পাঁচ হেক্টর, পাতিবিলায় পাঁচ হেক্টর, হাকিমপুরে ৬৫ হেক্টর, স্বরূপদাহে ৫০ হেক্টর, নারায়ণপুরে ২৫০ হেক্টর, সুখপুকুরিয়া ইউপিতে ৬০ হেক্টর এবং চৌগাছা পৌরসভায় পাঁচ হেক্টর জমিতে ভুট্টার চাষ করেছেন কৃষকরা।

সরেজমিনে উপজেলার সিংহঝুলি, সুখপুকরিয়া, নারায়ণপুর ও স্বরূপদাহ ইউপির বিভিন্ন গ্রামে গেলে একাধিক ভুট্টা চাষি জানান, ধানের দাম কমে যাওয়ায় তারা এবারই প্রথম ভুট্টার আবাদ করেছেন। কৃষকরা জানান, ফলন ভালো হলে ও বাজারে আশানুরূপ দাম পেলে আগামী মৌসুমে আরো বেশি জমিতে ভুট্টা চাষ করবেন তারা।

সুখপুকুরিয়া ইউপির রামকৃষ্ণপুর গ্রামের চাষি আজিজুর ও জিয়াউর রহমান বলেন, আমাদের বেশিরভাগ জমিতে ধান চাষ হতো। এ বছর ধানের দাম অস্বাভাবিক কমে যাওয়ায় একই জমিতে পরীক্ষামূলকভাবে ভুট্টা চাষ করেছি। ফলন ভাল হলে আগামীতে আরো বেশি জমিতে চাষ করবো।

চৌগাছা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রইচ উদ্দিন বলেন, বহুমুখী ফসলের চাষ না করলে কৃষকরা লাভবান হতে পারে না। তাছাড়া ধানের দাম কমে যাওয়ায় অনেক কৃষকই ভুট্টা চাষ করেছেন। আমি ও আমার সহকর্মীরা কৃষকদের পরামর্শসহ নানা সহযোগিতা করছি।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম আরো বলেন, ধানের দাম কমে যাওয়ায় কৃষকরা ভুট্টা চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। তাই চলতি মৌসুমে উপজেলায় ৪৭৫ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ হয়েছে।


পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন